রাজগঞ্জের রাস্তার চারপাশে দাড়িয়ে অসংখ্য মরা গাছ, যে কোন মুহুর্তে বড় ধরনের দূর্ঘটনা ঘটতে পারে

0
317

নিজেস্ব প্রতিবেদক : যশোরের মনিরামপুর উপজেলার আজও রাজগঞ্জ এলাকায় সরকারী রাস্তায় কয়েক বছর ধরে পড়ে আছে অসংখ্য  মরা গাছ । নষ্ট হয়ে যাচ্ছে ঐ সকল গাছ ,ফলে লাখ লাখ টাকা রাজস্ব থেকে বঞ্চিত হচ্ছে সরকার।যে কোন মুহুর্তে বড় ধরনের দূর্ঘটনা ঘটতে পারে দেখার মতো কেউ নেই।

উপজেলার রাজগঞ্জ  অঞ্চালের প্রায় ৮/১০টি রাস্তায় শত শত রেন্টি, মেহগনি,রোড শিমলু গাছ বিগত ৫/৭বছর পূর্বে  মারা যায়। ঐ গাছ গুলো সেই অবধি থেকে রাস্থায় মরা মুখ নিয়ে দাড়িয়ে রয়েছে। অথচ সরকারী ভাবে সেই গাছ গুলো দেখার কেউ নেই। বর্তমানে গাছ গুলো শুকিয়ে যেয়ে বিক্রির অনুউযোগী হয়ে উঠেছে। রাজগঞ্জ বাজার থেকে খোর্দ্দ খেয়াঘাট সড়কে প্রায় ২/৩ শ গাছ মারা যাওয়ার পর এখনো রাস্তায় দাড়িওে আছে। চিনাটোলা ফকির রাস্তা হতে রাজগঞ্জ শ্বশান ঘাট মোড় পর্যন্ত রাস্তার প্রায় ১ দেড়শ গাছের একই অবস্থা, রাজগঞ্জ থেকে যশোর পুলের হাট সড়কে রয়েছে প্রায় হাজারও মরা গাছ, মনিরামপুর থেকে রাজগঞ্জ রাজার সড়কের একই অবস্থায় শুকনো গাছ গুলো দাড়িয়ে রয়েছে। এ সকল রাস্তায় পড়ে রয়েছে বিভিন্ন সময় ঝড়ে কিংবা হাল্কা বাতাসে পড়ে যাওয়া অনেক গাছ। আবার রাস্তা থেকে চুরি করে কাটা গাছ গুলি ধরা পড়ার পর ঐ সকল গাছ গুলিঐ স্থানে পড়ে থাকতে দেখা গেছে। এলাকার অনেক রাস্তায় পড়ে আছে অনেক গাছ। ঐ গাছ গুলো সরকারী কোন লোকের নজরে না পড়ায় মাস যেতে না যেতেই রাস্তা থেকে উধাও হয়ে যাচ্ছে। এমনকি এ প্রতিবেদকও রাস্তায় পড়ে থাকা অনেক গাছের সংবাদ জেলা পরিষদে দিয়েছেন কিন্তু সেখান থেকে উত্তর আসে গাছ যে উঠায়ে আনবো তার খরচ নেই । ফলে সরকারের এ গুলো নিয়ন্ত্রনে না থাকায় অবজ্ঞা আর অবহেলার কারনে লাখ লাখ টাকার রাজস্ব থেকে বঞ্চিত হচ্ছে ।  গাছ গুলো সরকারী ভাবে টেন্ডার করে বিক্রি করলে লাখ লাখ টাকা সরকারী খাতে আসতো। এদিকে রাস্তায় রাস্তায় বড় বড় গাছ ও কাঠ পড়ে থাকায় ও মাস যেতে না যেতেই ঐ সকল কাঠ উধাও হয়ে যাওয়ায় সাধারন জনগনের প্রতিক্রিয়ায় জানান, সংশি¬ষ্ট সরকারের কর্মকর্তাদের অবহেলার কারনে সরকার লাখ লাখ টাকা রাজস্ব থেকে বঞ্চিত হচ্ছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here