রাজাকারদের বিরুদ্ধে লিখার কারনে সাংবাদিককে “ধড় থেকে মাথা আলাদা” করে ফেলার হুমকি

0
566

নিজস্ব প্রতিনিধি

স্বাধীনতা বিরোধী ও রাজাকারদের বিরুদ্ধে ফেসবুকে লিখার কারনে সাংবাদিককে “ধড় থেকে মাথা কেটে ফেলার” হুমকি দেওয়া হয়েছে। জীবন বাচাতে ১৫ সেপ্টেম্বর চৌগাছা থানায় একটি জিডি করেছেন ভূক্তভোগি ওই সাংবাদিক। জিডি নং-৬০২।
মঙ্গলবার সকাল ১১টায় প্রেসক্লাব যশোরে এক সাংবাদিক সন্মেলনে নিজের জীবননাশের হুমকির কথা লিখিতভাবে জানিয়েছেন অপরাধ দূর্গ সংবাদপত্রের ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক, সাপ্তাহিক চৌগাছা ও এনপিএস নিউজ বুলেটিন’র বিশেষ প্রতিনিধি কামরুল হাসান। সংবাদ সন্মেলনে তার সাথে উপস্থিত ছিলেন সাপ্তাহিক চৌগাছার চিফ রিপোর্টার খালেদুর রহমান, মানবাধিকার সংগঠন হিউম্যান রাইটস ভয়েজ’র যশোর জেলার ফাংশনাল মেম্বর মিজানুর রহমান ও মহসিন আলী নামে একজন আইনজীবি সহকারি।

থানায় দায়ের করা জিডিতে ও সাংবাদিক সন্মেলনে লিখিত বক্তব্যে কামরুল বলেন, ১৩ সেপ্টেম্বর ১১টা ১৬ মিনিটে আমার ফেসবুক আইডি “স্বাধীন মানচিত্র”তে “যশোর চৌগাছার উপজেলার নারায়নপুর ইউনিয়নের আওয়ামী লীগের কর্মীরা হতাশ,রাজাকার সদস্যদের পদধ্বনি” নামে একটি লেখা পোষ্ট করি। এতে ক্ষিপ্ত ওই দিনই মাত্র ৪০ মিনিট পরে “দৈনিক গ্রামের কাগজ’র ফটোসাংবাদিক পরিচয়দানকারি ও মাদক সেবী শামীম রেজা ওরফে “আতঙ্কের নাম শামীম” নামে একজন ০১৭১৬৩৪১৬৭৬ নাম্বার থেকে আমার ০১৭৫২-০২১৩৫৫ নাম্বারে কল দিয়ে “ধড় থেকে মাথা নামিয়ে ফেলার” হুমকি দেয়। তিনি আরো বলেন শামীমের সেই হুমকির ঘটনাকে আড়াল করতে স্থানীয় পত্রিকায় আমার নামে মিথ্যা বানোয়াট ও বিভ্রান্তিমূলক সংবাদ প্রকাশ করে তথ্য সন্ত্রাসের মাধ্যমে আমার সন্মান ক্ষুন্ন করছে। আমাকে ছাড়াও উপজেলায় কর্মরত সাংবাদিকদেরকে চতুর্থ শ্রেনীর সাংবাদিক বলা এবং বীর মুক্তিযোদ্ধাদের বিরুদ্ধে তার আইডি থেকে মানহানিকর লিখা পোষ্ট দিয়েছে। উপজেলার বিভিন্ন সন্মানী মানুষদের নামেও বিভিন্ন সময়ে ফেসবুকে মানহানিকর লেখা পোষ্ট করে থাকে এই মাদকসেবী শামীম। সংবাদ সন্মেলনে নিজের এবং পরিবারের নিরাপত্তার জন্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাছে আবেদন করেছেন সাংবাদিক কামরুল হাসান।