রাতভর কালবৈশাখীর কবলে থাকবে পুরো দেশ

0
104

নিজস্ব প্রতিবেদক : দুইদিন টানা তাপদাহের পর বুধবার (২৫ এপ্রিল) সন্ধ্যায় শুরু হওয়া কালবৈশাখীর তাণ্ডব রাতভর অব্যাহত থাকতে পারে। একইসঙ্গে দেশের নদীবন্দরগুলোতে বৃহস্পতিবার (২৬ এপ্রিল) সকাল ৯টা পর্যন্ত সতকর্তা দেওয়া হয়েছে।

আবহাওয়া অধিদফতর জানিয়েছে, রাজধানীতে সন্ধ্যার পর থেকে দফায় দফায় কালবৈশাখী বয়ে যাচ্ছে। মাঝে কিছু সময় বিরতি দিয়ে রাত সোয়া ৯টা থেকে রাজধানীতে ফের কালবৈশাখীর তাণ্ডব শুরু হয়েছে। এতে ব্যাপক দুর্ভোগে পড়তে হয়েছে ঘর ফেরত মানুষদের।

সরেজমিন দেখা যায়, কালবৈশাখী ঝড়ের তোপে পড়ে অনেক মোটরসাইকেল চালক গাড়ি থামিয়ে রাস্তায় নিরাপদ স্থানে আশ্রয় নিয়েছেন। যানবাহন সঙ্কটে ভুক্তভোগীদের যাত্রী ছাউনি, দোকান, গাছের নিচে আশ্রয় নিতে দেখা গেছে।

এদিকে রাজধানী ছাড়াও দেশের বিভিন্ন এলাকা থেকে দিনভর কালবৈশাখী, কোথাও কোথাও এর সঙ্গে শিলাবৃষ্টির খবর পাওয়া যায়। সন্ধ্যার পর নাটোরের উপর দিয়ে বয়ে যাওয়া কালবৈশাখী ঝড় ও শিলাবৃষ্টিতে গুরুদাসপুর, লালপুর ও সিংড়া উপজেলার উঠতি বোরো ধান, আম, তরমুজ এবং লিচুসহ বিভিন্ন ফসলের ব্যাপক ক্ষতি হওয়ার খবর পাওয়া গেছে। গাছপালা ভেঙে কোথাও কোথাও বিদ্যুৎ সংযোগবিচ্ছিন্ন হয়ে গেছে।
আবহাওয়া অধিদপ্তর সূত্রে জানা যায়, রংপুর, দিনাজপুর, ময়মনসিংহ, খুলনা, বরিশাল এবং পটুয়াখালী অঞ্চলসমূহের উপর দিয়ে পশ্চিম/উত্তর-পশ্চিম দিক থেকে ঘণ্টায় ৬০-৮০ কি. মি. বেগে বৃষ্টি/বজ্রবৃষ্টিসহ অস্থায়ীভাবে ঝড়ো হাওয়া বয়ে যেতে পারে। এসব এলাকার নদীবন্দরগুলোকে ২ নম্বর নৌ-হুঁশিয়ারি সংকেত দেখাতে বলা হয়েছে।

আবহাওয়াবিদ একেএম নাজমুল হক জানান, ঢাকা ও ময়মনসিংহ বিভাগের কিছু কিছু জায়গায় এবং রাজশাহী, রংপুর, সিলেট, খুলনা, বরিশাল ও চট্টগ্রাম বিভাগের দু’এক জায়গায় অস্থায়ীভাবে দমকা অথবা ঝড়ো হাওয়া ও বিজলি চমকানোসহ বৃষ্টি অথবা বজ্রবৃষ্টি হতে পারে। সেইসঙ্গে দেশের কোথাও কোথাও বিক্ষিপ্তভাবে শিলাবৃষ্টি হতে পারে।

তিনি আরও জানান, ঢাকায় দক্ষিণ/দক্ষিণ-পশ্চিমদিক থেকে ঘণ্টায় ১০ থেকে ১৫ কি.মি. বেগে সাধারণ বাতাসের গতিবেগ থাকলেও অস্থায়ীভাবে দমকায় হাওয়ার গতিবেগ ঘণ্টায় ৪০ থেকে ৫০ কি.মি. হতে পারে।

তবে সারাদেশে দিন ও রাতের তাপমাত্রা প্রায় অপরিবর্তিত থাকতে পারে। বুধবার ঢাকার সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ছিলো ৩১.৪ ডিগ্রি সেলসিয়াস ও সর্বনিম্ন ২৫.৩ ডিগ্রি সেলসিয়াস।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here