রাবিতে ভাস্কর্য উল্টিয়ে শিক্ষার্থীদের প্রতিবাদ

0
364

রাবি প্রতিনিধি : ভাস্কর্য উল্টিয়ে রেখেছে শিক্ষার্থীরারাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে (রাবি) ‘জরাজীর্ণ’ ভাস্কর্যের পরিচর্যা, নিরাপত্তা এবং ভাস্কর্য রাখার এলাকা দেয়াল তৈরি করে ঘিরে রাখার দাবিতে ভাস্কর্য উল্টিয়ে প্রতিবাদ করেছে শিক্ষার্থীরা। সোমবার (১৭ এপ্রিল) রাত পৌনে ১২টার দিকে চারুকলা বিভাগের শিক্ষার্থীরা বিভাগীয় চত্বরে এ ঘটনা ঘটান। তবে দাবি আদায়ে শিক্ষার্থীদের এ ঘটনাকে ন্যাক্কারজনক বলছেন শিক্ষকরা।
মঙ্গলবার (১৮ এপ্রিল) বেলা সাড়ে ১১টার দিকে ভাস্কর্য বিভাগের মাস্টার্সের শিক্ষার্থী ইউসুফ আলী স্বাধীন ও ইমরান হোসাইন রনি সাংবাদিকদের এ কথা জানান।
তারা বলেন, ‘দীর্ঘদিন থেকে আমাদের বানানো এই ভাস্কর্যগুলো এখানে জরাজীর্ণ হয়ে পড়ে আছে। কিন্তু এগুলোর পরিচর্যা করা হয় না। এছাড়া এই চত্বরে একটা প্রাচীর দেওয়ার জন্য আমরা বিভিন্ন সময় শিক্ষকদের বলেছি। কিন্তু এখানে কোনও প্রাচীর আজ পর্যন্ত দেওয়া হয়নি। প্রাচীর না থাকায় বাইরের অনেকেই এসে শিক্ষার্থীদের বানানো এই ভাস্কর্যগুলো ভেঙে দেওয়ার ঘটনাও ঘটেছে অতীতে।’
তারা আরও বলেন, ‘এ ভাস্কর্যগুলো সংস্কারের জন্য আমরা এগুলো উল্টিয়ে প্রতিবাদ জানিয়েছি। সোমবার রাতে আমরা ৩০-৪০ জন শিক্ষার্থী মিলে এটা করেছি। কিন্তু আমরা কোনও ভাস্কর্য ভাঙিনি। শুধু কর্তৃপক্ষ যাতে উদ্যোগ নেয় সেজন্যই এটা করা।’
মঙ্গলবার সকালে বিভাগের কর্মচারীরা এসে ভাস্কর্যগুলো উল্টানো দেখে শিক্ষকদের ফোন দেন।
মঙ্গলবার সরেজমিনে দেখা যায়, ভাস্কর্যগুলোকে উল্টিয়ে ছড়িয়ে ছিটিয়ে রাখা হয়েছে। তবে কোনও ভাস্কর্য ভাঙা হয়নি। এছাড়া ওই চত্বরে শিক্ষকদের পাঁচটি চেম্বারের দরজার সামনে ভাস্কর্য রেখে দরজা বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে।
তবে শিক্ষকরা এ ঘটনাকে অন্যভাবে দেখছেন। নাট্যব্যক্তিত্ব অধ্যাপক মলয় কুমার ভৌমিক বলেন, ‘এটা কোনও প্রতিবাদের ভাষা হতে পারে না। যে শিল্প নিজ হাতে তৈরি করছি, সেই শিল্পকে অবমাননা করে দাবি আদায়ের ভাষা খুবই লজ্জাজনক।’
বিভাগের অন্য বর্ষের শিক্ষার্থীরাও এ ঘটনার নিন্দা জানিয়েছেন। তারা বলেছেন, ‘এই ভাস্কর্যগুলোতে আমাদেরও অংশীদার আছে। আর পরিচার্যা বা প্রাচীরের দাবি আমরাও করি, কিন্তু এভাবে কেন প্রতিবাদ করতে হবে। আমরা অন্যভাবেও এ প্রতিবাদ করতে পারতাম।’
এ বিষয়ে বিভাগের সভাপতির অধ্যাপক মোস্তাফা শরীফ আনোয়ার বলেন, ‘চার-পাঁচজন শিক্ষার্থী এ কাজ করেছে। আমরা এ ঘটনার নিন্দা জানাচ্ছি। একই সঙ্গে বিশ্বাবিদ্যালয় প্রশাসনের সঙ্গে কথা বলে জড়িতের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here