রূপদিয়ায় বিদেশ ফেরতরা মানছেনা করোনা সংক্রান্ত কোনো বিধি-নিষেধ

0
327

রাসেল মাহমুদ : যশোরের রূপদিয়ায় সপ্তাহ খানেকের ব্যবধানে বিভিন্ন দেশ থেকে ফিরেছে ২৪ জনেরও বেশী নারী-পুরুষ। ফেরার পর থেকে তারা মানছেই না করোনা সংক্রান্ত কোনো প্রকার বিধি-নিষেধ। আতঙ্কিত গ্রামবাসী।

উপজেলা প্রশাসনের নির্দেশে সম্প্রতি বিদেশ ফেরৎ ব্যক্তিদের বাড়িবাড়ি লাল নিশান টানানো হচ্ছে নরেন্দ্রপুর ইউনিয়ন পরিষদ কর্তৃক।

সম্প্রতি বিশ্বের অন্যান্য দেশের মত বাংলাদেশেও ঢুকে পড়েছে করোনা ভাইরাস। সে কারনে দেশের জনসাধারণের নিরাপত্তার কথা চিন্তা করে বিদেশ ফেরৎ সকল শ্রেনী পেশার মানুষকে কমপক্ষে ১৪ দিনের হোম কোয়ারেন্টিনে থাকার নির্দেশনা প্রদান করেন বর্তমান সরকার। আর এসমস্ত কোনো নিয়মকেই পাত্তা না দিয়ে বিদেশ ফেরতরা অবলিলায় অবাধ বিচরণ করছে বলে অভিযোগ এলাকাবাসীর।

সম্প্রতি ইমেগ্রেশন ও নরেন্দ্রপুর ইউনিয়ন পরিষদ থেকে প্রাপ্ত তথ্য অনুযায়ী চলতি মাসের ৮ থেকে ২২ মার্চ পর্যন্ত যশোর সদর উপজেলার শুধুমাত্র নরেন্দ্রপুর ইউনিয়নে বিভিন্ন দেশ থেকে ফিরেছে ২৪ জনেরও বেশী সংখ্যক নারী ও পুরুষ। তারা কেউই করোনা ভাইরাস থেকে রক্ষার্থে সরকার কর্তৃক ঘোষণাকৃত নির্দেশনা তোয়াক্কা করছেনা।

সম্প্রতি ইমেগ্রেশণ থেকে নেওয়া তথ্য অনুযায়ী ১৫ মার্চে দেশে ফিরেছে নরেন্দ্রপুর গ্রামের কুলসুম বেগম (ইন্ডিয়া), আলী হোসেনের ছেলে মোস্তফা ভূঁইয়া, সামছুল মোল্লার মেয়ে মুরশীদা বেগম (ওমান), ১২ মার্চে চাউলিয়ার মালেক বিশ্বাসের ছেলে মিলন হোসেন (ইন্ডিয়া), শেখ শাহীন সিদ্দিক ও তার স্ত্রী শামীমা ইয়াসমিন (ইন্ডিয়া), ১৩ মার্চে ফিরেছে ছিলুমবাড়িয়া গ্রামের প্রত্যয় সরকার (ইন্ডিয়া), শ্রীপদ্দির নাছিমা বেগম (ইন্ডিয়া), ১০ মার্চে চৌঘাটার অপূর্ব লাল বসু ও সেফালী খাতুন (ইন্ডিয়া), ৮মার্চে হাটবিলার সবুর আলী ও বলরামপুরের ইমান আলী (ইন্ডিয়া), ১১ মার্চে নরেন্দ্রপুরের শিল্পী রানী দত্ত, বলরামপুরের আনারুল ইসলাম ও মমতাজ বিবি (ইন্ডিয়া), ১৮ মার্চে ঘোড়াছার প্রশান্ত সাহার ছেলে রাজীব সাহা (ইন্ডিয়া), ২ মার্চ নরেন্দ্রপুরের মোহাম্মাদ বিশ্বাসের ছেলে কামরুল ইসলাম (ইন্ডিয়া), ১৮ মার্চে ঘোড়াগাছার রত্না সাহা ও অরনা (ইন্ডিয়া) , ১১ মার্চে নন্দ সাহার ছেলে তপন সাহা (ব্রনিয়া), ১৩ মার্চে দুলাল ও প্রিয়া সাহা (ইন্ডিয়া) থেকে বাংলাদেশের এঅঞ্চলে অবস্থান করছে।

এর মধ্যে ঘোড়াগাছার নন্দ সাহার বাড়িতে ইউনিয়ন পরিষদ কর্তৃক লাল নিশান উড়িয়ে দিয়েছে।

ইউপি সচিব সিদ্দিক আলী জানান, এসকল নিশান চিহ্নিত বাড়ি ও লোকজন এড়িয়ে চলা চলের পরামর্শ দিয়েছেন এলাকাবাসীদের। এছাড়া করোনা ভাইরাজ সক্রান্ত বিভিন্ন সচেতনতা মূলক প্রচার অভিযান অব্যহত থাকবে বলে জানিয়েছে।