রোহিঙ্গাদের কারণে সমস্যা দেখা দিয়েছে পর্যটন খাতে: মেনন

0
277

সাতক্ষীরা প্রতিনিধি : রোহিঙ্গাদের কারণে বাংলাদেশের পর্যটন খাতে কিছু সমস্যা দেখা দিয়েছে। ক্ষতিগ্রস্থ হচ্ছে পাহাড় ও বন।

এর ফলে প্রাকৃতিক সৌন্দর্যও নষ্ট হচ্ছে বলে জানিয়েছেন বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটনমন্ত্রী রাশেদ খান মেনন।
তিনি বলেন, মিয়ানমারে জাতিগত নির্যাতন ও গণহত্যার শিকার রোহিঙ্গাদের মানবিক কারণে আশ্রয় দিয়েছে বাংলাদেশ। তাদের আশ্রয় না দিলে তা হতো অমানবিক। তবে তাদের আশ্রয় দেওয়ায় স্থানীয়ভাবে কিছু অভিঘাত আসবে। এরই মধ্যে উখিয়া ও টেকনাফ এলাকার জনসংখ্যা অপেক্ষা রোহিঙ্গাদের সংখ্যা বেশি হয়ে দাঁড়িয়েছে।

শনিবার সাতক্ষীরা সার্কিট হাউসে সাংবাদিকদের সাথে আলাপকালে বিভিন্ন প্রশ্নের জবাবে এ কথা জানান তিনি।

মন্ত্রী বলেন, সেন্ট মার্টিনে ১ অক্টোবর থেকে পর্যটন মৌসুম শুরু হবার কথা থাকলেও তা হয়নি। চর জেগে যাওয়ায় নাফ নদী দিয়ে চলাচল করতে হবে। আর তা হবে অনেকটাই ঝুঁকিপূর্ণ।

তবে রোহিঙ্গাদের কারণে পর্যটন শিল্পে এখন পর্যন্ত কোনো বিঘ্ন দেখা দেয়নি।
বিএনপি যে সহায়ক সরকারের কথা বলছে তার কোনো অস্তিত্ব নেই সংবিধানে। সংবিধান অনুযায়ীই একাদশ সংসদ নির্বাচন হবে উল্লেখ করে তিনি বলেন, বর্তমানে যে সরকার রয়েছে সেই সরকারই সহায়ক সরকার হিসাবে কাজ করবে। ২০১১ সালের আদমশুমারি অনুযায়ী ২০১৪ এর নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়েছিল। নতুন করে আর আদমশুমারি হয়নি। এ অবস্থায় নতুন করে সীমানা নির্ধারণের চেষ্টা করা হলে নানা জটিলতার সৃষ্টি হবে। এতে নির্বাচনও খানিকটা বাধাগ্রস্ত হবে।

সাংবাদিকদের অপর এক প্রশ্নের জবাবে বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া তার মামলার রায় তড়িঘড়ি করে দেওয়ার যে অভিযোগ তুলেছেন তা খণ্ডন করে রাশেদ খান মেনন বলেন, তিনি ৫৪ বার মামলা স্থগিত করার সুযোগ পেয়েছেন। এমনকি আট মাস মামলা আটকে রেখেছেন। প্রতিটি মামলার ধার্য দিনের মধ্য সাতদিন সময়ও পাচ্ছেন তিনি। সুতরাং তড়িঘড়ি করে তার মামলার রায় ঘোষণার যে অভিযোগ তিনি তুলেছেন তা যথার্থ নয়।

পরে সাতক্ষীরা শিল্পকলা একাডেমি মিলনায়তনে অক্টোবর বিপ্লবের শতবার্ষিক উপলক্ষে এক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।

সাতক্ষীরা জেলা ওয়ার্কাস পার্টির সভাপতি সংসদ সদস্য অ্যাড. মুস্তফা লুৎফুল্লাহর সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় আরও বক্তব্য রাখেন অধ্যাপক ড. সুশান্ত দাস, মহিবুল্লাহ মোড়ল, অ্যাড. ফাহিমুল হক কিছলু প্রমুখ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here