রোহিঙ্গা ক্যাম্পে নিহত ৪ জনের মধ্যে ২ জন বাঙালি

0
111

আরজ ফিারুক, টেকনাফ : কক্সবাজারের উখিয়ার কুতুপালং ক্যাম্পে আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে রোহিঙ্গাদের মধ্যে ভয়াবহ সংঘর্ষের ঘটনায় ৪ জন নিহতের মধ্যে দুইজন স্থানীয় বাঙালি যুবক রয়েছেন।

তারা হলেন, টেকনাফের হ্নীলা ইউনিয়নের রংগীখালীর এলাকার নুরুল বশর ও একই এলাকার নুর হুদা। নিহত অপর দুইজন হলেন, শীর্ষ রোহিঙ্গা সন্ত্রাসী মুন্নার ভাই গিয়াস ও মারুফ।

নিহতদের পারিবারিক সূত্রে তাদের নিহতের বিষয়টি নিশ্চিত হওয়া গেছে। তবে কেন বা কি কারণে তাদের হত্যা করা হয়েছে তা এখনো জানা যায়নি।
নিহত নুর হুদার ভাই ইসমাইল জানান, নুরুল বশর ও নুর হুদাকে মাইক্রোবাস চালান। তারা রোহিঙ্গাদের নিয়ে হ্নীলা থেকে কুতুপালং যায়। এরপরে ভাড়ার টাকা নিয়ে কথা কাটাকাটি হলে রোহিঙ্গারা জবাই করে হত্যা করে। তিনি এ ঘটনার সুষ্ঠু তদন্ত করে প্রকৃত রোহিঙ্গা সন্ত্রাসীদের আইনের আওতায় আনার দাবি জানান।

অন্যদিকে প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানা যায়, মঙ্গলবার সন্ধ্যার পরে সংঘর্ষে শুরু হলে সন্ত্রাসী মুন্নার পরিবারের কিছু সদস্য একটি মাইক্রোবাসে করে পালিয়ে যাওয়া চেষ্টা করে। তখন প্রতিপক্ষরা ওই গাড়িতে হামলা চালায়। এই সময় গাড়িতে থাকা চালক ও হেলপার হামলার শিকার হয়ে মারা যায়।

এ ব্যাপারে উখিয়া থানার অফিসার ইনচার্জ (ভারপ্রাপ্ত) আহমেদ সঞ্জুর মোরশেদকে ফোন করা হলে তিনি জানান, আমরা পরিচয় জানার চেষ্টা করছি। পরিচয় পেলে জানানো হবে।