লাইসেন্স বিহীন লোহাগড়ায় ডক্টরস স্পেশালাইজড হসপিটাল চললে লাগামহীন ভাবে

0
190

নিজস্ব প্রতিবেদক: নড়াইল জেলার লোহাগড়া উপজেলায় দীর্ঘদিন ধরে সরকারি বিধিমালাকে তোয়াক্কা না করে অনিয়ম আর অব্যবস্থাপনার মধ্যদিয়ে অসাধু ব্যবসায়ী গড়ে তুলেছেন একটি বেসরকারি প্রতিষ্ঠান। ডক্টরস স্পেশালাইজড হাসপিটাল এন্ড ডায়াগনষ্টিক সেন্টার নামের কশাই খানা। তারা প্রতিষ্ঠা লগ্নথেকেই সরকারের রাজস্ব না দিয়েই লাইসেন্স বিহীন ব্যবসা করে যাচ্ছে। সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ বারবার লাইসেন্স করার জন্য ওই প্রতিষ্ঠানসহ উপজেলার ৬টি প্রতিষ্ঠানকে চিঠি দিলেও প্রতিষ্ঠানের মালিকেরা প্রভাবশালী হওয়ায় তা তোয়াক্কা করছেন না। অনুমোদন বিহীন এসব প্রতিষ্ঠানে চিকিৎসা সেবার মান ও অতিরিক্ত বিল নেওয়া নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন এলাকাবাসী। ডক্টরস স্পেশালাইজড হসপিটালের পরিচালক ডাঃ সুজিৎ কুন্ডুর সাথে কথা বলে জানা যায়, প্রতিষ্ঠানটিতে চার জন পরিচালকসহ এলাকার প্রভাবশালী সরকারি কর্মকর্তা কর্মচারি মিলে মোট ৩৫ জন শেয়ার হোল্ডার নিয়ে ডক্টরস স্পেশালাইজড হসপিটালটি পরিচালিত হচ্ছে। প্রতিষ্ঠানে ম্যানেজার শেখ মাহমুদুল হাসানের কাছে অনুমোদন সম্পর্কে জানতে চাইলে তিনি বলেন, সমস্ত কাগজ-পত্র হয়ে গেছে। তবে অনুমোদন পেতে প্রক্রিয়াধীন আছে। স্বাস্থ্য অধিদপ্তর সুত্রে জানা যায়, তারা গত অর্থ বছরে অনলাইন আবেদন করেছিলেন কাগজপত্র ঠিক নেই তাই পেন্ডিং এ ফেলে রাখা হয়েছিল।
সংশ্লিষ্ট সূত্রে আরও জানা গেছে, লাইসেন্স বিহীন লোহাগড়া ডক্টরস স্পেশালাইজড হসপিটালসহ অন্যান্য প্রতিষ্ঠান সমুহ নাম উল্লেখ করে বন্ধ করে দেওয়ার অনুরোধ জানিয়ে গত ১৮ জুলাই জেলা প্রশাসক বরাবর নড়াইল সিভিল সার্জন চিঠি দিয়েছেন।
পৌর সভার গোবিন্দগপুর গ্রামের ভ্যান চালক হাই মিয়া জানান, ডক্টরস স্পেশালাইজড হসপিটালে গত ৭ এপ্রিল আমার মুত্র থলিতে পাথর অপারেশন করতে যাই। অপারেশন করতে ১৮ হাজার টাকা চুক্তি থাকলেও আমাকে দুইদিন হাসপাতালে আটকে রেখে আমার কাছ থেকে ৩৩ হাজার টাকা আদায় করে নেয় কর্তৃপক্ষ। ডক্টরস স্পেশালাইজড হসপিটাল সম্পর্কে নড়াইল সিভিল সার্জন ডা: মো: আসাদ-উজ-জামান মুন্সীর জানতে চাইলে তিনি বলেন, লোহাগড়া এই হসপিটাল কে বা কাহারা পরিচালনা করে আমি জানিনা আমার কাছে কেউ অনুমোদনের জন্য আসেনি। উপজেলার অবৈধ প্রতিষ্ঠান বন্ধ করে দেওয়ার অনুরোধ জানিয়ে আমি জেলা প্রশাসক বরাবর চিঠি দিয়েছি।
জেলা প্রশাসক আনজুমান আরা বলেন, ‘আমরা লাইসেন্স বিহীন প্রতিষ্ঠান গুলির বিরুদ্ধে দ্রুত অভিযান পরিচালনা করে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করব।’

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here