লিফটম্যান ও ইন্টার্নি নার্সকে লাঞ্চিত করার প্রতিবাদে,ঝিনাইদহ সদর হাসপাতালের নার্স কর্মচারীদের মানববন্ধন

0
98

স্টাফ রিপোর্টার, ঝিনাইদহ : ঝিনাইদহ সদর হাসপাতালের চিকিৎসক, নার্স ও কর্মচারীদের উপর একের পর এক হামলার প্রতিবাদে সোমবার কর্মকর্তা কর্মচারীরা মানববন্ধন কর্মসুচি পালন করেন। সকালে হাসপাতাল চত্বরে শতাধীক কর্মকর্তা কর্মচারী তাদের নিরাপত্তা নিশ্চিত ও হাসপাতালে স্থায়ী নিরাপত্তার দাবীতে এই কর্মসুচির আয়োজন করেন। অনুষ্ঠানে ডাঃ জাকির হোসেন, এসএসএমও আরিফুর রহমান, ওয়ার্ড মাষ্টার পিকুল হোসেন, প্রদিপ কুমার, রানা আহম্মেদ, এ্যাম্বুলেন্স ড্রাইভার শহিদুল ইসলাম, ইমামুল, পলাশ হোসেন, বাবু ও নার্স সুপারভাইজার ফেরদৌসি রহমান প্রমুখ বক্তব্য রাখেন। কর্মসুচি শেষে এক সমাবেশে বলা হয়, রোববার হাসপাতালের লিফটম্যান ইমামুল ইসলামকে বেধড়ক পিটিয়ে জথম করেছে সন্ত্রাসীরা। ঘটনার দিন দুপুরে লিফটে ওঠা নিয়ে তার উপর এই হামলা চালানো হয়। আহত ইমামুল ঝিনাইদহ সদর উপজেলার সুরাট ইউনিয়নের লাউদিয়া গ্রামের শামছুল আলমের ছেলে। ঝিনাইদহ আড়াই’শ বেড হাসপাতালের তত্বাবধায়ক সৈয়দ রেজাউল ইসলাম এ খবর নিশ্চিত করে জানান, লিফটে ওঠার জন্য কিছু যুবক রোববার ঘটনাস্থলে উপস্থিত হলে অপারেটর ইমামুল তাদের লাইনে দাড়াতে বলেন। এতে তারা ক্ষিপ্ত হয়ে বেদম মারপিট করে। তিনি বলেন হাসপাতালের সিসিটিভি ফুটেজ দেখে হামলাকারীদের সনাক্ত করার চেষ্টা করা হচ্ছে। এর মধ্যে খাজুরা গ্রামের ছোটন নামে এক ব্যক্তির পরিচয় পাওয়া গেছে। হামলাকারী ছোটন হাসপাতালে এই কান্ড ঘটিয়ে খাজুরা গ্রামে আবুন মন্ডল হত্যা মিশনে অংশ নেয়। এদিকে সোমবার দুপুরে হাসপাতালের শিশু ওয়ার্ডে এক রোগীর অভিভাবক ইন্টার্নি করা এক নার্সকে লাঞ্চিত করে। তার ওড়না ধরে টানাটানি করে বলে অভিযোগ করা হয়। এ সমস্ত ঘটনায় হাসপাতালে স্থায়ী ভাবে নিরাপত্তা কর্মী নিয়োগের দাবী জানানো হয়।