লোহাগড়ায় ধর্ষণের শিকার স্কুল ছাত্রীর অবৈধ সন্তান প্রসব ॥ ধর্ষক পলাতক

0
2921

নড়াইল প্রতিনিধি ঃ নড়াইলের লোহাগড়ায় এক স্কুল ছাত্রীকে প্রেমের ফাঁদে ফেলে ফুসলিয়ে নিয়ে ধর্ষণ করেছে এক লম্পট কলেজ ছাত্র। এ ঘটনায় ওই ছাত্রী গর্ভপাতের শিকার হয়ে অবৈধ সন্তান প্রসব করেছে লোহাগড়া হাসপাতালে। ঘটনাটি জানা জানির পর লম্পট কলেজ ছাত্র পালিয়েছে।
জানা গেছে, উপজেলার লক্ষ্মীপাশা ইউনিয়নের নোয়াপাড়া গ্রামের জহুর শেখের মেয়ে আমাদা আদর্শ মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের সদ্য সমাপ্ত এসএসসি পরিক্ষার্থী মিতু খানম (১৬)’র সাথে পার্শবর্তী ঝিকড়া গ্রামের জিল্লু রহমানের ছেলে লোহাগড়া সরকারি কলেজের এইচএসসি পরিক্ষার্থী নয়ন (১৮)’র মধ্যে দেখা সাক্ষাতের এক পর্যায়ে মোবাইলে ফুসলিয়ে প্রায় ১০ মাস আগে নয়নের বাড়ির পাশে বাগানে নিয়ে ধর্ষণ করে। এ ঘটনায় মিতু খানম গর্ভবতী হয়ে পড়ে। ধীরে ধীরে তার গর্ভের সন্তান বড় হয়ে যায়। প্রসব যন্ত্রনায় রোববার (২ এপ্রিল) ভোর রাতে মিতু লোহাগড়া হাসপাতালে ভর্তি হয়। সে হাসপাতালের বাতরুমে ছেলে সন্তান প্রসব করে বাতরুমের প্যানের মধ্যে ফেলে রেখে আসে। পরে অন্য রোগিরা বাতরুমে গিয়ে ওই বাচ্ছা দেখে চিৎকার করতে থাকে। হাসপাতালের আয়া বাতরুমের প্যানের ভিতর থেকে বাচ্ছাটি তুলে আনে। ততক্ষনে শিশুটি মারা যায়। লোহাগড়া থানার অফিসার ইনচার্জ জাহাঙ্গীর আলম বলেন, ‘হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের অভিযোগের ভিত্তিতে বাচ্ছাটি উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য নড়াইল সদর হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here