লোহাগড়ায় সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ভবন নির্মাণ কাজে রডের বদলে বাঁশ

0
1036

নড়াইল প্রতিনিধিঃ নড়াইলের লোহাগড়ায় ২৯নং নোয়াগ্রাম সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ভবন নির্মাণ কাজে রডের বদলে বাঁশের ফালি ব্যবহার করে ঢালাই দেয়া হয়েছে। গত বৃহস্পতিবার ওই বাঁশের ফালি নোয়াগ্রামের রেওয়াজ নামে একটি ছেলে তুলে নিয়ে গেছে। এ ঘটনায় এলাকায় ব্যাপক তোলপাড়ের সৃষ্টি হয়েছে।
সরেজামিনে শনিবার (৪ মার্চ) সকালে বিদ্যালয় গিয়ে জানা গেছে, বিদ্যালয়টি ১৯০৬ সালে প্রতিষ্ঠিত হয়। ২০০২-২০০৩ সালের দিকে নতুন করে একটি ভবন নির্মাণ করা হয়। নোয়াগ্রামের ছাপা ও নাজির নামের দুই ব্যক্তি ঠিকাদার ছিলেন বলে এলাকাবাসী সূত্রে জানা যায়। ভবন নির্মাণের সময় রডের পরিবর্তে বাঁশ ব্যবহার করেন তারা। সম্প্রতি বিদ্যালয়ের ভবনের ঢালাই ও প্লাস্টার খসে বাঁশের অংশ বিশেষ বের হলে বিষয়টি নজরে আসে। বিদ্যালয়ের ভবনের ছাদসহ বিভিন্ন স্থানে ফাটল দেখা দিয়েছে। যে কোন সময় ধ্বসে পড়তে পারে ভবনটি। আতঙ্ক আর ঝুঁকি নিয়ে ওই ভবনেই চলছে প্রায় দেড়শতাধিক কোমলমতি শিক্ষার্থীর পাঠদান। এ নিয়ে বেশ উদ্বিগ্ন ও ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে অভিভাবকসহ এলাকাবাসীর মধ্যে। ভবনে ফাটল ও বাঁশ বের হয়ে যাওয়ায় ছাত্র-ছাত্রীরাও ভয়ে আসতে চাচ্ছে না বিদ্যালয়ে।
এ ব্যাপারে জানতে চাইলে বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক কাজী রবিউল ইসলাম জানান, বিদ্যালয়ের ভবনটির ছাদে ফাটল ও ভবনের পিলারে বাঁশ বের হওয়ার ঘটনাটি সত্য। তবে এ বিষয়ে মোবাইলের মাধ্যমে উদ্ধর্তন কর্তৃপক্ষকে জানিয়েছেন। লোহাগড়া উপজেলার প্রকৌশলী ওসমান গণী জানান, ‘ভবনে বাঁশ পাওয়া গেলেও অন্য কোন অংশে বাঁশ না থাকলে ভবনটি ঝুকির মধ্যে থাকবে না’।
বিষয়টি তদন্ত করে ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান, ঠিকাদার, প্রকৌশলীসহ সংশ্লিষ্ট কাজের সাথে জড়িতদের বিরুদ্ধে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানিয়েছেন অভিভাবক, এলাকার গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গসহ সচেতন মহল। তারা আরও জানান, অতি দ্রুত তদন্ত করে সংশ্লিষ্ট কাজের সাথে জড়িত সকলের বিরুদ্ধে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির ব্যবস্থা না করা হলে উপজেলা শিক্ষা অফিস ঘেরাও করে কঠিন কর্মসূচি দেয়া হবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here