শার্শার নাভারণ কাশিপুরের পাকা সড়কটি এখন এলাকার মানুষের মরনফাদ

0
314

আরিফুজ্জামান আরিফ : শার্শা উপজেলার নাভারণ থেকে কাশিপুর গ্রামীণ জনপদের পাকা সড়কটি এখন এলাকার মানুষের মরনফাদ। হয়ে পড়েছে বেহাল দশা বিরাজমান।  সীমাহীন দুর্ভোগে এলাকার হাজার হাজার মানুষ। দুর্বিসহ হয়ে উঠেছে জনজীবন।দুর্ঘটনা নিত্য দিনের সাথী।

শার্শা উপজেলায় ১ হাজার ২ শত কিলোমিটার কাঁচা-পাকা সড়ক রয়েছে। ১৯৭১ সাল থেকে বিভিন্ন সরকারের শাসনামলে এ পর্যন্ত ৩ শত ৭০ কিলোমিটার সড়ক পাকা হয়েছে। এর মধ্যে দীর্ঘদিন সংস্কার অভাবে শতাধিক কিলোমিটার সড়ক চলাচলে অনুপযোগী হয়ে পড়েছে। গ্রামীণ এ সড়ক দিয়ে চলাচল করতে গিয়ে প্রায়ই দুর্ঘটনার শিকার হচ্ছেন পথচারী, স্কুল-কলেজ ও মাদ্রাসাগামী শিক্ষক-কর্মচারী ও শিক্ষার্থীরা। শার্শা উপজেলায় নাভারণ-কাশিপুর, শার্শা-স্বরুপদহ, কাগজপুকুর-রামপুর, বেনাপোল-দৌলতপুর, বাগআঁচড়া-বালুণ্ডা, জামতলা-বালুণ্ডা, সাতমাইল-গোগাসহ শতাধিক পাকা সড়ক দীর্ঘদিন ধরে অবহেলিত অবস্থায় ব্যবহারের অনুপযোগী হয়ে পড়ে আছে।ৃমাঝে মাঝে পিচ খোয়া উঠে খানা খন্দরে পরিনত হয়ে গেছে। সংস্কারের কোন উদ্যোগ নেই।কর্তৃপক্ষ  মনে হয় নাকে তেল দিয়ে গভীর ঘুমে মগ্ন। ভুক্তভোগীদের দাবি, এলাকার উন্নয়নের স্বার্থ ও কষ্টের কথা বিবেচনায় এনে বর্ষার আগেই পাকা সড়কগুলো মেরামত করার উদ্দোগ নেওয়া দরকার।

এ ব্যাপারে উপজেলা প্রকৌশলী রশিদুজ্জামান বলেন, শার্শা উপজেলার প্রকৌশল অধিদফতর, পল্লী জনগোষ্ঠিকে যোগাযোগের আওতায় আনার জন্য কাজ করে যাচ্ছে। এ উপজেলায় ১ হাজার ২ শত কিলোমিটার কাঁচা-পাকা সড়ক রয়েছে। যার মধ্যে ৩ শত ৭০ কিলোমিটার সড়কের পাকার কাজ সম্পন্ন হয়েছে। চলতি অর্থ বছরে প্রায় ৩০ কিলোমিটার সড়ক পাকা করা হয়েছে। আর ২৪ কিলেমিটার পাকা সড়ক মেরামতের আওতায় নেওয়া হয়েছে। এর মধ্যে ১৩ কিলোমিটার পাকা সড়কের মেরামতের কাজ সম্পন্ন হয়েছে। ১১ কিলোমিটার পাকা সড়কের মেরামতের কাজ চলমান রয়েছে। উপজেলার অনেক গুরুত্বপূর্ণ মেরামত উপযোগী সড়ক সংস্কারের আওতায় আনার জন্য কাজ করা হচ্ছে। আগামী কয়েক বছরের মধ্যে এ উপজেলার মেরামত উপযোগী গুরুত্বপূর্ণ পাকা সড়কের মেরামতের কাজ সম্পন্ন করা যাবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here