শার্শার বাগআঁচড়ায় ধান-চাল সংগ্রহ অভিযানে মিলার ও কৃষকদের আগ্রহ না থাকায় এক ছটাক ধান ও চাল কিনতে পারেনি বাগআঁচড়া খাদ্য বিভাগ

0
336

আরিফুজ্জামান আরিফ: শার্শার বাগআঁচড়া খাদ্য গুদামের ধান-চাল সংগ্রহ অভিযানে মিলার ও কৃষকদের আগ্রহ নেই। সরকার নির্ধারিত দামের চেয়ে বাজারদর বেশি হওয়ায় ধান-চাল বিক্রিতে সাড়া দিচ্ছেন না তারা।

সরকারিভাবে ধান-চাল কেনার অভিযান পার হলেও এক ছটাক ধানও কিনতে পারেনি খাদ্য বিভাগ।

এভাবে চলতে থাকলে চলতি মৌসুমে সরকারের খাদ্য সংগ্রহ অভিযান ব্যর্থ হবে বলে আশঙ্কা প্রকাশ করছে বাগআঁচড়া খাদ্য বিভাগ।

বাগআঁচড়া খাদ্য গুদাম এর ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা এস এম কামরুজ্জামান জানান,  চলতি মৌসুমে বাগআঁচড়া খাদ্য গুদামের অধীনে বাগআঁচড়া,কায়বা,উলসী ও গোগা এ চারটি ইউনিয়ন থেকে ৭শ টন ধান ও ১ হাজার টন সিদ্ধ চাল কেনার লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করে।

ধান ক্রয়ের অভিযান শেষ হলেও এক ছটাক ধান কেনা যায়নি। তিনি আরো জানান, গত ১ মে থেকে ৩১ আগস্ট পর্যন্ত চাল কেনার সময় থাকলেও এ পর্যন্ত  মিলাররা মাত্র ৯৮ টন চাল সরবরাহ করতে সম্মত হয়েছেন। এ অবস্থায় বাকি  চাল কেনা সম্ভব হবে না।

মিলার ও কৃষকদের অনাগ্রহ সম্পর্কে তিনি আরো জানান, সরকার এবার ধানের মূল্য ২৪টাকা ও চালের ক্রয়মূল্য নির্ধারণ করেছে ৩৪ টাকা কেজি। কিন্তু বাজারে চাল বিক্রি হচ্ছে ৩৭ টাকারও বেশি দরে।

বাজারমূল্য বেশি হওয়ায় ধান এবং চাল বিক্রিতে সাড়া দিচ্ছেন না বাগআঁচড়া,কায়বা,উলসী,ও গোগা এলাকার কৃষক ও মিলাররা।

এ অবস্থায় ধান-চাল কেনা অভিযান ব্যর্থ হতে পারে বলে তিনি মনে করছেন তিনি আরো জানান, সরকার ঘোষিত সময় অতিবাহিত হতে চললেও গুদামেএক ছটাকও চাল ঢোকেনি।

১ হাজার টন চাল কেনার লক্ষ্যমাত্রা থাকলেও  কৃষক ও মিলাররা সরকারের কাছে চাল বিক্রি করেনি বলে তিনি জানান।ফলে আগামী দিনে সরকার ঘোষিত ভিজিএফ ও ভিজিটি চাল দেওয়া কঠিন হয়ে যাবে।

সূত্র জানায়,এলাকার মিলাররা সরকারের ধান ও চাল ক্রায় অভিযান ব্যহত করে তারা বেশী মুনাফা করার জন্য নিজেদের গুদামে ধান  ও চাল গুদামজাত করে এই সংকট সৃষ্টি করেছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here