“শার্শার  সাতরাইল ও বহিলাপোতা বিলের অবৈধ বেড়িবাঁধ পাটা ও স্থাপনা উচ্ছেদ “

0
347

আরিফুজ্জামান আরিফ : যশোরের শার্শার বাহাদুরপুর ইউনিয়নের সাতরাইল ও বহিলাপোতা বিলের অবৈধ বেড়িবাঁধ পাটা ও স্থাপনা উচ্ছেদ অভিযান পরিচালনা করেছে  শার্শা উপজেলা প্রশাসন। এতে ব্যাপক সাড়া দিয়েছেন স্থানীয় জনগন।

বুধবার বিকালে এ অভিযান পরিচালিত হয়েছে।

প্রশংসনীয় এ অভিযান পরিচালনা কাজটির নেতৃত্ব দিয়েছেন শার্শার উপজেলা নির্বাহী অফিসার পুলক কুমার মণ্ডল ও সহকারী কমিশনার (ভূমি) আব্দুল ওয়াদুদ।

জানা যায় , উপজেলা প্রশাসন সহ স্থানীয়দের সহযোগিতায় সাতরাইল ও বহিলাপোতা বিলে দেওয়া বাঁধ ও পাটা উচ্ছেদ অভিযান পরিচালিত হয়েছে। দখল মুক্ত করা হয়েছে এ দু বিলের বিভিন্ন এলাকা।
এই কাজে নদী রক্ষা কমিটি, জনপ্রতিনিধি এবং অত্র ইউনিয়নের আপাময় জনতা প্রশাসনকে সার্বিক সহযোগিতা করেন। এ উচ্ছেদের ফলে প্রায় এক হাজার হেক্টর জমির ফসল জলাবদ্ধতা থেকে মুক্ত হয়।

এই সময় অবৈধ বেড়িবাঁধ ও পাটা উচ্ছেদের কাজে বাধা দেওয়ায় বাহাদুরপুর ইউনিয়নের ধান্যখোলা গ্রামের আতাউর রহমান ও নূর ইসলামকে ৫ হাজার টাকা করে মোট ১০ হাজার টাকা জরিমানা করে ভ্রামমান আদালত।

স্থানীয়রা জানান, প্রতিবছর অবৈধ পাটা ও  বাঁধের কারনে তাদের ধান পাট সহ সবজিক্ষেত ডুবে যেত। ক্ষতিগ্রস্থ হতো তারা। এখন অবৈধ পাটা ও বাঁধ উচ্ছেদ করে বিলের পানির বহমান ধারা চালু করে দেওয়ার সরকারের এই নন্দিত পদক্ষেপ কে স্বাগত জানিয়েছে শার্শা উপজেলা অঞ্চলের লাখো মানুষ।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার পুলক কুমার মণ্ডল ও সহকারী কমিশনার (ভূমি) আব্দুল ওয়াদুদ বলেন, দীর্ঘদিন যাবত উন্মুক্ত সাতরাইল ও বহিলাপোতা বিলে জবরদখল করে পাটাবাঁধ ও মাটিবাঁধ দিয়ে মাছ চাষ করে আসছিলো এক শ্রেণীর অসাধু লোক।নদী খাল বিল সহ অবৈধ দখলদারদের উচেছদ অভিযান অব্যাহত থাকবে। এই কাজে সবার সার্বিক সহযোগিতা কামনা করেছেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here