শৈলকুপায় কলাবাগানে মাসের পর মাস রমরমা জুয়ার আসর, দেখার কি কেউ নেই?

0
361

ঝিনাইদহ প্রতিনিধি : ঝিনাইদহের শৈলকুপায় কলাবাগানে মাসের পর মাস রমরমা জুয়ার আসর দেখার কি কেউ নেই? এ প্রশ্ন এখন শৈলকুপাজুড়ে টপ সংবাদে পরিণত হয়েছে। শৈলকুপার পৌরসভা, চড়িয়ারবিল, মদনডাঙ্গা, শেখপাড়াসহ বিভিন্ন এলাকায় জুয়ার হাট বসেছে। অবাধে লাখ লাখ টাকার অবৈধ জুয়া খেলা চলছে। আর খেলা চালাতে দিন ভাগ করে ইজারা নিয়েছে কোর্ট মালিকেরা। আর এসবই হচ্ছে পুলিশের নাগের ডগায়। সিনেমার এক চিত্র নায়িকার ভাই ভুট্রো, শেখপাড়া এলাকার আফসার উদ্দিন, বকুল, আনোয়ার, ছানোয়ার, হালিমসহ বেশ কয়েকজন এ সব জুয়ার কোট পরিচালানা করছে। অনুসন্ধানে জানা যায় শৈলকুপা শহরের কবিরপুর ব্রীজের নিচে চারা বিক্রির হাটে রয়েছে একটি গোপন কক্ষ। সেখানে সিনেমার ওই চিত্র নায়িকার ভাই বছরের পর বছর জুয়ার আসর বসিয়ে মানুষকে বিপথে ঠেলে দিচ্ছে। ওই আসরে হরিণাকুন্ডু, ঝিনাইদহ ও কুষ্টিয়া থেকে জুয়াড়িরা যাচ্ছে। কোন ভাবেই তারা কাউকে পরোয়া করে না। বরং দম্ভোক্তি প্রকাশ করে বলে বেড়ায় সব আমরা ম্যানেজ করেছি। এদিকে মদন ডাঙ্গা বাজারে ত্রিবেনী ইউনিয়নের পরিষদের পেছনে মাঠের মধ্যে যেন এক নিরিবিলি পরিবেশে জুয়ার হাট বসিয়েছে আফসার উদ্দিন নামে এক জুয়াড়ি। সে প্রতি মঙ্গল ও শুক্রবার কোর্টটি চালায়। এভাবে অন্যান্য দিনে বাকি লোকেরা ভাগে জুয়ার আসর বসায় চড়িয়ার বিল বাজার ও শেখপাড়ায়। গত কয়েকদিন সংবাদ কর্মীরা ছদ্মবেশে জুয়ার কোটে পৌছাতে গলদঘর্ম হতে হয়। সেখানে পৌছাতে কয়েক স্তরের নিরাপত্তা রয়েছে। বাঁকে বাঁকে মানুষ পাহারা দিচ্ছে। সেখানে রয়েছে অনেক দামী দামী ব্র্যান্ডের গাড়ি। দেখে বোঝা যাচ্ছে অনেক নামি দামী লোক জুয়ার আসরে অংশ নিচ্ছে। বিষয়টি নিয়ে শৈলকুপা থানার ওসি আলমগীর হোসেন জানান, জুয়া কোন প্রকারেই চলতে দেয়া হবে না। এর আগে ইউএনও সাহেবের নির্দেশে আমরা কয়েকটি কোর্ট ভেঙ্গে দিয়েছি। তাদেরকে হুসিয়ার করে দিয়েছি খেলা না চালাতে। ওসি আরো জানান, তারপরও কেও জুয়া খেলা করলে রেহাই পাবে না।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here