“শ্রমিকদের ন্যায্য মজুরি পরিশোধ না করায় স্থলবন্দর চেয়ারম্যান সহ ৫ জনের বিরুদ্ধে রুল জারি”

0
344

আরিফুজ্জামান আরিফ বাগগআঁচড়া : শ্রমিকদের ন্যায্য মজুরির  হার পরিশোধ না করায় বাংলাদেশ স্থলবন্দর চেয়ারম্যান সহ  ৫ জনের বিরুদ্ধে রুল জারি করেছেন সুপ্রীম কোর্ট।  জারিকৃত ঐ ৫ জনের মধ্যে রয়েছে বাংলাদেশ স্থল বন্দরের চেয়ারম্যান,  নৌ পরিবহন মন্ত্রণালয়ের সচিব, পরিচালক, বেনাপোল স্থল বন্দর, এস আই এস রসদ সিস্টেম (জেভি) ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান এবং সচিব, শ্রম ও কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়।
বাংলাদেশ স্থল বন্দর শ্রমিক ফেডারেশনের কেন্দ্রিয় কমিটির সহ সাধারন সম্পাদক মিজানুর রহমান  তার শ্রমিকরা ন্যায্য মুজুরী  না পাওয়ায় তিনি বাদি ঐ ৫ জনের বিরুদ্ধে   সুপ্রিমকোর্টে একটি রীট পিটিশন দায়ের করেন। যাহার নম্বার ২৬৫১/২০১৭। রীট পিটিশন এ মামলার সুত্র জানান ২ সেপ্টেম্বর-২০১০ সালে সুপ্রিম কোর্টের রায়ের প্রজ্ঞাপন এস আর ও নম্বর ৩১১ আইন/২০১০/শ্রকম/অধিশাখা-৬/নিমনি-১৮/২০০৯ ও মহামান্য সুপ্রিম কোর্টের আপিল বিভাগ ঈরারষ ঢ়বঃরঃরড়হ ভড়ৎ খবধাব ঃড় অঢ়ঢ়পধষ ঘড় ৩০৮০/২০১৪ ধৎরংরহম ড়ঁঃ ড়ভ ৎিরঃব ঢ়বঃরঃরড়হ হড়-৫৪২২ ড়ভ ২০১২ এর সিদ্ধান্ত মোতাবেক সর্বশেষ প্রজ্ঞাপন যাহার এস আর ও নম্বর ৩২০/আইন/২০১৬ এর বাস্তবায়ন না করায় মহামান্য সুপ্রিম কোর্টের আদেশ বাংলাদেশ শ্রম আইনের ২০০৬ মোতাবেক সরকারি ব্যবস্থাপনাধীন বন্দর ব্যবহারকারিদের নিকট থেকে আদায়কৃত অর্থের সাধারন শ্রমিকদের লোডিং আনলোডিং এর লেবার হ্যান্ডলিং চার্জ শ্রমিক ও সরকারের মধ্যে ৬৫:৩৫ হারে বিভক্ত করে শ্রমিক গণকে ন্যায্য মজুরি ৬৫% হারে প্রদান করার কথা।
কিন্তু বাংলাদেশ স্থল বন্দর কর্তৃপক্ষ মহামান্য সুপ্রিম কোর্টের ঘোষিত ও জারিকৃত প্রজ্ঞাপন ও এস আর ও মোতাবেক শ্রমিকদের প্রাপ্য মজুরি প্রদান না করে ঠিকাদার প্রতিষ্ঠানের মাধ্যমে টন প্রতি বেনাপোল স্থল বন্দরে ২৪.৫০ টাকা ও ভোমরা স্থল বন্দরে ১৬ টাকা হারে মজুরি প্রদান করছেন। এ ছাড়া ২ সেপ্টেম্বর -২০১৬ তারিখে বাংলাদেশ স্থল  বন্দর কর্তৃপক্ষ শ্রমিকদের নুন্যতম মুজুরী হার নির্ধারন করে আরো  একটি প্রজ্ঞাপন জারী করেন যাহার এস আর ও নং- ৩২০ আইন/২০১৬। বাংলাদেশ শ্রম আই-২০১৬ উপধারা ১ এর প্রদত্ব ১৩৯ এর অধীন বাংলাদেশ স্থল বন্দর শিল্প সেক্টর বলে উলে¬খিত নিন্মতম মুজুরী বোর্ড কর্তৃক সুপারিশকৃত শ্রমিকদের মুজুরী হার সরকার ও শ্রমিকদের মধ্যে মুজুরী হার ৫০:৫০ হারে শ্রমিকদের প্রদানের কথা।
রাষ্ট্রপতির আদেশ ক্রমে ২৫ অক্টবর/২০১৬ তারিখে উপসচিব শাকিলা জেরিন আহম্মেদ উক্ত এস আর ও বাংলাদেশ গেজেড আকারে প্রকাশ করেন। বাংলাদেশ স্থল বন্দর কর্তৃপক্ষ সুপ্রিম কোর্টের আদেশ অমান্য করে শ্রমিকদের ন্যায্য অধিকার ও প্রাপ্য মুজুরী হার মোতাবেক পাওনা পরিশোধ না করে সুপ্রিম কোর্টের আদেশ  অমান্য করে  বন্দরের সকল কাজ কর্ম চালিয়ে যাচ্ছেন।
এ শ্রমিক নেতা অভিযোগ করে জানান অব্যাবস্থাপনার মধ্যে দিয়ে পরিচালিত হচ্ছে দেশের ১৩টি স্থল বন্দর । শ্রমিকদের ন্যায্য অধিকার ও পাওনা আদায়ের বিষয়ে শ্রমিকরা যে কোন সময় বন্দর কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে অবস্থান নিতে পারে। রিট পিটিশন কারি শ্রমিক নেতা মিজানুর রহমান   আরো জানান  বন্দর কর্তৃপক্ষ যতক্ষন পর্যন্ত আদালতের রায় অনুপাতে মুজুরী হার পরিশোধ না করবেন ততক্ষন পর্যন্ত  আদালতের সরনাপন্ন থাকবো।
এ ব্যাপারে বাংলাদেশ স্থল বন্দর চেয়ারম্যান তপন কুমার চক্রবর্তীর নিকট শ্রমিকদের ন্যায্য মুজুরী হার ও সুপ্রিম কোর্টের আদেশ বাস্তবায়ন  হয়েছে কিনা  জানতে চাইলে  তিনি জানান   আমি এখন বাইরে আছি  কথা বলা যাবে না।
এ ব্যাপাওে বেনাপোল স্থল বন্দরের পরিচালক আমিনুল ইসলাম এর নিকট জানতে চাইলে তিনি বলেন বিষয়টি ঠিক আছে কিন্তু আমি এখন ও কোন চিঠি পায়নি। চিঠি না পেলে বিস্তারিত বলা যাবে না

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here