সীমিত পরিসরে মধুকবির জন্মবার্ষিকী উদযাপিত

0
82

নিজস্ব প্রতিবেদক:পুষ্পার্ঘ্য অর্পণ ও ভার্চুয়াল আলোচনা সভার মধ্য দিয়ে সীমিত পরিসরে উদযাপিত হলো বাংলা সাহিত্যে অমিত্রাক্ষর ছন্দের প্রবর্তক মহাকবি মাইকেল মধুসূদন দত্তের ১৯৮তম জন্মবার্ষিকী। মঙ্গলবার বিকেলে উপজেলার সাগরদাঁড়ির মধুপল্লীতে স্থাপিত মধুকবির আবক্ষে যশোর জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে পুষ্পার্ঘ্য অর্পণ করা হয়। এ সময় উপস্থিত ছিলেন, যশোর জেলা প্রশাসক তমিজুল ইসলাম খান, স্থানীয় সরকার বিভাগের উপপরিচালক হুসাইন শওকত, কেশবপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা এম এম আরাফাত হোসেন, সহকারী কমিশনার (ভূমি) মো. আরিফুজ্জামান, কেশবপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) বোরহান উদ্দীন, সাগরদাঁরির মধুপল্লীর কাস্টডিয়ান আইরিন পারভীন প্রমুখ।
এরপরে ঊনবিংশ শতাব্দীর অন্যতম শ্রেষ্ঠ বাঙালি কবি ও নাট্যকার মহাকবি মাইকেল মধুসূদন দত্তের জীবনীসহ তার সাহিত্যের উপর ভার্চুয়াল আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। কেশবপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা এম এম আরাফাত হোসেনের সভাপতিত্বে ভার্চুয়াল আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তৃতা করেন, জেলা প্রশাসক তমিজুল ইসলাম খান। সভায় বক্তব্য দেন, কেশবপুর পৌর মেয়র রফিকুল ইসলাম, মধুসূদন গবেষক কবি খসরু পারভেজ, যশোর জেলা সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোটের সভাপতি সুকুমার দাস, প্রেসক্লাব যশোরের সভাপতি জাহিদ হাসান টুকুন, প্রভাষক কানাই লাল ভট্টাচার্য্য, কেশবপুর প্রেসক্লাবের সভাপতি আশরাফ-উজ-জামান খান প্রমুখ। মহামারি করোনা ভাইরাসের কারণে এবারও কবির জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে সাগরদাঁড়িতে মধুমেলা অনুষ্ঠিত হয়নি।