সেনা কর্মকর্তাসহ সৌদি আরবে গৃহবন্দি ইয়েমেনের প্রেসিডেন্ট

0
258

ম্যাগপাই নিউজ ডেস্ক : ইয়েমেনের প্রেসিডেন্ট আব্দ রাব্বু মানসুর হাদিকে গৃহবন্দি করেছে সৌদি আরব। একইসঙ্গে তার কয়েকজন পুত্র, দেশটির কয়েকজন মন্ত্রী আর সেনা কর্মকর্তাকেও গৃহবন্দি করা হয়েছে। সৌদি আরবের আঞ্চলিক মিত্র সংযুক্ত আরব আমিরাতের সঙ্গে আব্দ রাব্বু মানসুর হাদি’র টানাপড়েন তৈরির পর তাদের ব্যাপারে এ ব্যবস্থা নেওয়া হয়। মঙ্গলবার (৭ নভেম্বর) এক প্রতিবেদনে এ খবর জানিয়েছে কাতারভিত্তিক সংবাদমাধ্যম আল জাজিরা।

ইয়েমেনে সৌদি জোটের সামরিক অভিযানের গুরুত্বপূর্ণ অংশীদার সংযুক্ত আরব আমিরাত। ইয়েমেনের দক্ষিণাঞ্চলীয় এডেন নগরীসহ দেশটির বেশকিছু এলাকা সৌদি জোটের দখলে রয়েছে। দেশটিতে আব্দ রাব্বু মানসুর হাদি’র সরকারের পূর্ণ নিয়ন্ত্রণ প্রতিষ্ঠার লক্ষ্যে ২০১৫ সালের মার্চে ইয়েমেনে সামরিক অভিযান শুরু করে সৌদি জোট। এই অভিযানে এখন পর্যন্ত ১০ হাজারেরও বেশি মানুষ নিহত হয়েছেন। গৃহহীন হয়েছেন কয়েক লাখ মানুষ। যুদ্ধের কারণে দেশটিতে ভয়াবহ স্বাস্থ্যঝুঁকি দেখা দিয়েছে। কলেরায় আক্রান্ত হয়েছেন পাঁচ লাখেরও বেশি মানুষ।

যে আব্দ রাব্বু মানসুর হাদি’র পূর্ণ নিয়ন্ত্রণ প্রতিষ্ঠার জন্য সৌদি জোট ইয়েমেনে দীর্ঘ লড়াই চালিয়ে যাচ্ছে খোদ সৌদিতেই তার গ্রেফতার তাই আলোচনার জন্ম দিয়েছে। বিশ্লেষকরা বলছেন, আব্দ রাব্বু মানসুর হাদি নিজ দেশে কর্তৃত্ব হারানোয় তাকে এখন ছুঁড়ে ফেলতে চাইছে তার মিত্ররা। এর সঙ্গে যুক্ত হয়েছে আমিরাতের সঙ্গে তার সাম্প্রতিক টানাপড়েন।

গত ফেব্রুয়ারিতে ইয়েমেনে হুথি বিদ্রোহীদের উত্থানের মুখে মিত্র দেশ সৌদি আরবে পালিয়ে যান আব্দ রাব্বু মানসুর হাদি। এরপর তিনি সৌদি রাজা সালমান বিন আবদুল আজিজের কাছে কয়েক দফায় নিজ দেশে ফেরার ব্যবস্থা করার অনুরোধ জানান। কিন্তু সেই অনুরোধ কোনও কাজে আসেনি। গত আগস্টে দেশে ফেরার জন্য রিয়াদ বিমানবন্দরে গেলে সেখান থেকে তাকে ফিরিয়ে নেয় সৌদি কর্তৃপক্ষ। সর্বশেষ পুত্র ও নিজ প্রশাসনের সামরিক-বেসামিরক কর্মকর্তাসহ তার গৃহবন্দি হওয়ার খবর এলো।

এদিকে সৌদি আরবে বসে পদত্যাগের ঘোষণা দেওয়া লেবাননের প্রধানমন্ত্রী সাদ হারিরি রিয়াদ থেকে সংযুক্ত আরব আমিরাত সফরে গেছেন। সফরে আমিরাতি যুবরাজ মুহাম্মাদ বিন জায়েদ আল-নাহিয়ানের সঙ্গে বৈঠক করেন।

এদিকে মধ্যপ্রাচ্যের আরেক দেশ ইরানের বিরুদ্ধে সামরিক আগ্রাসনের অভিযোগ তুলেছেন সৌদি যুবরাজ মোহাম্মদ বিন সালমান। তিনি বলেছেন, ইয়েমেনের হুথি বিদ্রোহীদের ক্ষেপণাস্ত্র সরবরাহের মাধ্যমে সৌদি আরবের বিরুদ্ধে ‘সরাসরি সামরিক আগ্রাসন’ চালাচ্ছে ইরান। হুথিরা তেহরানের সরাসরি কমান্ডের অধীনে কাজ করছে। এটিকে সৌদি আরবের বিরুদ্ধে সরাসরি যুদ্ধ ঘোষণার শামিল। যথাসময়ে এবং যথাযথ পন্থায় তাদের এসব কর্মকাণ্ডের জবাব দেওয়ার পূর্ণ অধিকার রিয়াদের রয়েছে। মঙ্গলবার সৌদি আরবের রাষ্ট্রীয় সংবাদমাধ্যমে তার এমন বক্তব্য উঠে এসেছে।

সৌদি আরবের অভিযোগ অবশ্য সরাসরি প্রত্যাখ্যান করেছে তেহরান। ইরানি পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের একজন মুখপাত্র বলেন, সৌদি আরবের অভিযোগ অযৌক্তিক ও উস্কানিমূলক। এ ধরনের বানোয়াট অভিযোগের কারণে পরিস্থিতি আরও জটিল হয়ে উঠছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here