হত্যা সহ একাধিক মামলার আসামী তালার ওহাব বাহিনীর অত্যাচারে এলাকার মানুষ আতংকিত

0
230

বি. এম. জুলফিকার রায়হান, তালা : হত্যা, চাঁদাবাজী, প্রতারনা, হামলা, ভাংচুর ও হত্যার চেষ্টা সহ একাধিক মামলার আসামী তালা উপজেলার গৌতমকাটি গ্রামের ওহাব বাহিনীর অত্যাচারে এলাকার মানুষ অতিষ্ট হয়ে উঠেছে। একাধিকবার জেল খেটে জামিনে বের হবার পর ওহাব আলী এলাকায় ত্রাসের রাজত্ব কায়েমের জন্য মানুষের উপর অত্যাচার শুরু করায় তাকে ফের গ্রেফতারের দাবী জানিয়েছে এলাকার শান্তি প্রিয় মানুষ।

একাধিক সূত্রে জানাগেছে, তালা উপজেলার গৌতমকাটি গ্রামের মৃত নওয়াব আলী শেখ’র পুত্র ওহাব আলী শেখ একজন পেশাদার দূর্বৃত্ত। সে দীর্ঘ বছর ধরে মানব পাচার, প্রতারনা ব্যবসা সহ নানাবিধ অপকর্মের সাথে জড়িত রয়েছে। সে এলাকার দূর্ধর্ষ সন্ত্রাসী ক্রসফায়ারে নিহত মোজাফ্ফর সহ একাধিক সন্ত্রাসী বাহিনীর সাথে জড়িত থেকে এলাকায় নানান অপকর্ম শুরু করে।

তার বিরুদ্ধে ইতোপূর্বে ঢাকার ভাটারা থানায় হত্যা মামলা (নং : ৩৬, তাং : ৩০/০৪/১৪ ইং, ধারা ৩০২/৩৪), ঢাকার বিমানবন্দর থানায় প্রতারনা ও জাল-জালিয়াতি মামলার একাধিক ধারায় মামলা (নং : ৩৯, তাং : ১৯/০৯/১৩ ইং) রয়েছে। এছাড়া দূর্বৃত্ত ওহাব’র নেতৃত্বে ও তার বাহিনীর সদস্য হাকিম শেখ, হালিম শেখ, সাবিনা ও বিউটি গং ধারালো অস্ত্র নিয়ে গোতমকাটি গ্রামের তাছলিমা পারভীনের বাড়িতে হামলা চালিয়ে লুটপাট ও একাধিক ব্যক্তিকে কুপিয়ে জখম করার অভিযোগ রয়েছে।

এঘটনায় তাছলিমা বেগম পারভীন বাদী হয়ে তালা থানায় ওহাব সহ তার লোকজনদের বিরুদ্ধে একটি মামলা (নং : ১৩, তাং : ২৭/০২/১৭ ইং ) দায়ের করেন। উক্ত মামলার তদন্ত শেষে মামলার তদন্তকারী অফিসার মো. নাজমুল হুদা বিজ্ঞ আদালতে গুরুতর সহ একাধিক ধারার অভিযোগপত্র দায়ের করেছেন। এঘনায় ওহাব গং তাছলিমার পরিবারকে হুমকি প্রদান করে যাচ্ছে।

গোতমকাটি গ্রামের এজাজ হোসেন জনি জানান, ওহাব আলী শেখ একজন পেশাদার প্রতারক ও দূর্বৃত্ত। হত্যা সহ একাধিক মামলায় সে বারবার জেল খাটার পর বর্তমানে জামিনে এসে এলাকার সাধারন মানুষের উপর হামলা, হুমকি দিয়ে ত্রাসের রাজত্ব কায়েম করার চেষ্টা চালাচ্ছে।

জনি বলেন, তাঁর বোন গৌতমকাটি গ্রামের তাছলিমা পারভীনের পরিবারের উপর হামলা ও হত্যার চেষ্টা মামলায় জেলে যাবার পর সে জামিনে বেরিয়ে আসে। এরপরই ওহাব আলী প্রকাশ্যে মামলার বাদী ও তার পরিবারকে নানাবিধ হুমকি প্রদান শুরু করে। এঘনায় ওহাব গংদের বিুরদ্ধে তালা থানায় একটি জিডি (৮৫২, তাং ২৮/০২/১৭) করা হয়। উক্ত জিডির প্রেক্ষিতে পুলিশ তদন্ত করে বিজ্ঞ আদালতে যথাযথ প্রক্রিয়ায় দূর্বৃত্ত ওহাব গংদের বিরদ্ধে প্রসিকিউশন (০৪/১৭) দায়ের করেছেন।

এঘটনা জানতে পেরে ওহাব ও তার বাহিনীর সদস্যরা এজাজ হোসেন জনি সহ তার পরিবারকে পুনরায় নানাবিধ হুমকি প্রদান করলে, জনি বাদী হয়ে সাতক্ষীরার বিজ্ঞ নির্বাহী আদালতে একটি অভিযোগ দায়ের করেন। বর্তমানে দূর্বৃত্ত ওহাব ও তার পোষ্য লোকজন এলাকায় জমি দখল চেষ্টা, হত্যার চেষ্টা সহ নানাবিধ অপকর্ম করে ত্রাসের রাজত্ব সৃষ্টির পায়তারা করায় এলাকার শান্তিপ্রিয় মানুষের মাঝে আতংক বিরাজ করছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here