হরিণাকুন্ডুতে শিক্ষককে মারপিটে সভাপতির শাস্তি দাবিতে মানববন্ধন, ক্লাস বর্জন

0
258

নিজস্ব প্রতিবেদক, ঝিনাইদাহ : শিক্ষককে মারপিট করে লাঞ্চিতের ঘটনায় মানববন্ধন, ক্লাস বর্জন ও সভাপতির শাস্তি দাবি করছে শিক্ষক-শিক্ষার্থী ও এলাকাবাসী। হরিণাকুন্ডু উপজেলার ভবানীপুর মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে বৃহস্পতিবার সকালে ঘন্টব্যাপী এ মানববন্ধন কর্মসূচী পালন করা হয়। ঘন্টাব্যাপী এ মানববন্ধনে শিক্ষক-শিক্ষার্থী ও এলাকাবাসী এক জোট হয়ে বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি বাচ্চু মোল্লা এবং ঘটনার সাথে জড়িতদেরকে অবিলম্বে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানান।

মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন, তাহেরহুদা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মনজের আলী, ইউনিয়ন আ’লীগের সাধারন সম্পাদক আতিয়ার রহমান, শিক্ষক মিজানুর রহমানসহ বিদ্যালয়ের শিক্ষক, শিক্ষার্থীবৃন্দ। লাঞ্চিত হওয়া শিক্ষক মিজানুর রহমান ও এলাকাবাসী সুত্রে জানা গেছে, বুধবার সন্ধ্যায় শিক্ষক মিজান বাড়ির সামনে বসে ছিলেন। এ সময় বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি বাচ্চু মোল্লার নেতৃত্বে তার ক্যাডার তৌহিদসহ অজ্ঞাত কয়েকজন মিজানুরের উপর ক্ষিপ্ত হয়ে বেধড়ক মারপিট করে। পরে স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কেন্দ্রে ভর্তি করে।

এ ঘটনায় মিজান বাদী হয়ে তৌহিদ ও তার আপন ভাইকে আসামী করে থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেন। অভিযোগটি নিয়মিত মামলা হিসেবে গণ্য করা হয়েছে এবং প্রয়োজনীয় ব্যাবস্থা গ্রহন করা হবে বলে জানান হরিণাকুন্ডু থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মাহাতাব উদ্দীন। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক শিক্ষকরা জানান, কাউকে না জানিয়ে বিদ্যালয়ের তহবিল থেকে সভাপতি বাচ্চু মোল্লা ও প্রধান শিক্ষক মিজানুর রহমান গোপনে প্রায় ১ লাখ ৩০ হাজার ট্কা উত্তোলন করে আত্বসাৎ করেন। এতে প্রতিবাদ করেন শিক্ষক প্রতিনিধি মিজানসহ বিদ্যালয়ের শিক্ষকরা।

এ নিয়ে বিদ্যালয়ের শিক্ষক-কর্মচারীদের সাথে সভাপতি বাচ্চু মোল্লার বিরোধ চলে আসছিলো। এ কারনেই সভাপতি তার ক্যাডার বাহিনী দিয়ে মিজানুর রহমান নামের শিক্ষককে মারপিট করে। এ ঘটনায় সভাপতির বিচার না হওয়া পর্যন্ত ক্লাস বর্জনের ঘোষনা দিয়েছেন শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা। জেলা শিক্ষক সমিতির সভাপতি জয়া রাণী ও সাধারন সম্পাদক ইউসুফ আলী দুঃখ প্রকাশ করে দোষিদের দৃষ্টান্ত মূলক শাস্তির দাবি জানান তা না হলে বৃহত্তর আন্দোলন ঘোষনা করা হবে ।

এ বিষয়ে ভবানীপুর মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মিজানুর রহমান জানান, শিক্ষককে পারপিট করে আহতের ঘটনা সত্য। সভাপতি বাচ্চু মোল্লা আমার কাছ থেকে জোর করে চেকে সই করে ১ লাখ ৩০ হাজার টাকা উত্তোলন করে আত্বসাত করেছেন। শিক্ষক মারপিট ও টাকা আত্বসাতের বিষয়ে বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি বাচ্চু মোল্লা জানান, তিনি ঘটনার দিন ঝিনাইদহ শহরে ছিলেন। এবং এ ঘটনার বিষয়ে তিনি কিছুই জানেন না বলে দাবি করেন। উন্নয়নমুলক কাছ করার জন্য কিছু টাকা উত্তোলন করা হয়েছে তবে আত্বসাৎ করা হযনি বলে তিনি জানান।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here