হাড্ডাহাড্ডি লড়াইয়ের পর ৫৯১ ভোটে হেরে গেলেন হিরো আলম

0
128

নিজস্ব প্রতিবেদক, বগুড়া : সাম্প্রতিক সময়ে অনলাইন কিংবা অফলাইন- সর্বত্র আলোচিত নাম আশরাফুল হোসেন আলম ওরফে হিরো আলম। ২০১৮ সালে অংশ নিয়েছিলেন সংসদ নির্বাচনেও। এবার বগুড়া-৬ এবং বগুড়া-৪ আসনের উপনির্বাচনে লড়াই করেছেন। বগুড়া-৬ আসনে বড় ব্যবধানে হারলেও বগুড়া-৪ (কাহালু-নন্দীগ্রাম) আসনে হাড্ডাহাড্ডি লড়াই করেছেন। শেষ পর্যন্ত মহাজোটের প্রার্থী রেজাউল করিম তানসেনের কাছে (মশাল) ৫৯১ ভোটে হেরে যান হিরো আলম।

বুধবার সন্ধ্যায় ঘোষিত ফলাফলে বগুড়া-৪ আসনের উপ-নির্বাচনে ১১২ কেন্দ্রের ফলাফলে জয়ী মহাজোটের প্রার্থী রেজাউল করিম তানসেন পেয়েছেন ২০ হাজার ৪৩৭ ভোট আর হিরো আলম পেয়েছেন ১৯ হাজার ৮৪৬ ভোট। যদিও শুরুর একের পর এক কেন্দ্রে চমক দেখাচ্ছিলেন হিরো আলম কিন্তু শেষ পর্যন্ত মশালের কাছে হেরে যান।

বেসরকারিভাবে ফলাফলের পর হিরো আলম ভোটারদের প্রতি কৃতজ্ঞতা জানিয়ে বলেন, আপনারা আশাহত হবেন না। আবারো ভোটের মাঠে নামবো। এবার ভোটের লড়াই শেষ করেছেন। পর্দায় ফিরে দেশের মানুষকে আবারো আনন্দ দিতে চান তিনি।
কড়া নিরাপত্তার মধ্যে দিয়ে বগুড়া-৪ (কাহালু-নন্দীগ্রাম) আসনের উপ-নির্বাচনের ভোটগ্রহণ হয়। বগুড়া-৪ (কাহালু-নন্দীগ্রাম) আসনে মোট ভোটার ৩ লাখ ২৮ হাজার ৪৬৯। ভোট কেন্দ্রের সংখ্যা ১১২টি। আর ভোট কক্ষের সংখ্যা ৭৭৭টি। এর মধ্যে অস্থায়ী কক্ষ ছিল ৪২টি। এ আসনের প্রার্থীরা ছিলেন- ১৪ দলীয় জোট মনোনীত প্রার্থী জাসদের কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক একেএম রেজাউল করিম তানসেন (মশাল), জাতীয় পার্টির মনোনীত প্রার্থী শাহীন মোস্তফা কামাল ফারুক (লাঙ্গল), জাকের পার্টির প্রার্থী আলহাজ্ব আব্দুর রশিদ সরদার (গোলাপ ফুল), বাংলাদেশ কংগ্রেস পার্টির তাজ উদ্দিন মন্ডল (ডাব), স্বতন্ত্র প্রার্থী আশরাফুল হোসেন আলম ওরফে হিরো আলম (একতারা), মুশফিকুর রহমান কাজল (ট্রাক), কামরুল হাসান সিদ্দিকী জুয়েল (কুড়াল), এ্যাড. ইলিয়াস আলী মন্ডল (কলার ছড়ি) ও গোলাম মোস্তফা (দালান) প্রর্তীক নিয়ে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন।