হাসপাতালের নিবিড় পর্যবেক্ষণে যশোর থেকে উদ্ধার হওয়া সিংহ-বাঘের শাবকগুলো

0
321

নিজস্ব প্রতিবেদক : প্রাডো জিপ থেকে উদ্ধার হওয়া সিংহ ও চিতা বাঘের ৪ শাবককে গাজীপুরের শ্রীপুরে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব সাফারি পার্কে স্থানান্তর করা হয়েছে। স্থলপথে ভারতে পাচারের সময় সোমবার সকালে যশোরের চাঁচড়া এলাকা থেকে বন্য এই প্রাণিগুলো উদ্ধার করে স্থানীয় পুলিশ।
.
মঙ্গলবার ভোর ৪.১০ মিনিটে ওই চিতা ও সিংহ শাবকগুলো আনা হয় পার্কে। পরে সাফারি পার্কের বন্যপ্রাণি উদ্ধার কেন্দ্রের নিবিড় পর্যবেক্ষণ কেন্দ্রে রাখা হয় শাবকগুলোকে। এখন নিয়মিত পরিচর্যার সঙ্গে শাবকগুলোকে নিয়মিত খাবার দেওয়া হচ্ছে।

পার্কের প্রাণি পরিদর্শক আনিসুর রহমান জানান, মঙ্গলবার ভোর চারটা ১০ মিনিটে একটি গাড়িতে করে দুটি চিতা শাবক ও দুটি সিংহ শাবক নিয়ে আসেন খুলনা বিভাগীয় অঞ্চলের প্রাণি পরিদর্শক রাজু আহম্মেদ।
এ সময় শাবকগুলো পার্কের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. মোতালেব হোসেনের কাছে শাবকগুলো হস্তান্তর করা হয়। আগে থেকে প্রস্তুত করা প্রাণি পর্যবেক্ষণ কেন্দ্রে নেওয়া হয় শাবকগুলোকে।

তিনি জানান, পার্কে নতুন দুই সিংহ শাবকসহ মোট ২১টি সিংহ হলো। এর মধ্যে সাদা (জিনগত) সিংহ রয়েছে চারটি আর অপর সতেরটি বাদামি সিংহ।
তিনি আরো জানান, সিংহ শাবক দুটির বয়স আড়াই মাস ও চিতা শাবক দুটির বয়স দেড় মাস। চিতা এক বছর বয়স হলেই দুইটাকে আলাদা আলাদা কক্ষে রাখতে হবে।

পার্কের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (রেঞ্জার) মো. মোতালেব হোসেন জানান, পার্কে আগেও সিংহ শাবকের জন্ম হয়েছে। সেগুলো ভাল আছে। নতুন দুটি সিংহ শাবককে উপযুক্ত সময়ে অবমুক্ত করা হবে। তবে আমাদের সাফারি পার্কে চিতা বাঘ রাখার কোনো ব্যবস্থা নাই। চিতা শাবকগুলো প্রাপ্তবয়স্ক হওয়ার আগেই তাদের বসবাস উপযোগী পরিবেশ তৈরী করতে হবে। আমরা চাই এ সাফারি পার্কে চিতা বাঘ নতুন বাসিন্দা হোক আর দর্শনার্থীদের আর্কষণে পরিণত হোক।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here