নড়াইলের অপহৃত চতুর্থ শ্রেণির ছাত্র পাবনা থেকে উদ্ধার ॥ গ্রেফতার ১

0
688

নড়াইল প্রতিনিধি
নড়াইলের কালিয়া উপজেলার ভোমবাগ এলাকা থেকে অপহৃত চতুর্থ শ্রেণির ছাত্র বাবুল হোসেনকে পাবনা থেকে উদ্ধার করেছে পুলিশ। অপহরণের সঙ্গে জড়িত সন্দেহে পাবনা জেলার চাটমোহর থানার বামনগ্রামের গোপেশ্বর চন্দ্র সরকারকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। অপহৃত বাবুল নড়াইলের ভোমবাগ গ্রামের ফিরোজ হোসেনের ছেলে।
বৃহস্পতিবার (২৭ জুলাই) দুপুরে সংবাদ সম্মেলনে নড়াইলের পুলিশ সুপার সরদার রকিবুল ইসলাম সাংবাদিকদের শিশু বাবুল অপহরণ প্রসঙ্গে এসব কথা জানান।
পুলিশ সুপার আরো জানান, নড়াইলের ভোমবাগ ব্র্যাক স্কুলের চতুর্থ শ্রেণির ছাত্র বাবুল হোসেন অপহরণের বিষয়টি অবগত হওয়ার ১৪ ঘণ্টার মধ্যে পাবনা পুলিশ সুপারের সহযোগিতায় বাবুলকে উদ্ধার করা হয়েছে। অপহরণকারীরা মোবাইল ফোনের মাধ্যমে বাবুলের পরিবারের কাছে ৫৭ হাজার টাকা দাবি করেছিল। কালিয়া থানার এসআই আতিক উদ্ধার কাজে নের্তৃত্ব দেন।
পুলিশ জানায়, গত ২২ জুলাই বাড়ি থেকে প্রাইভেট পড়তে বের হওয়ার পর নড়াইলের ভোমবাগ থেকে বাবুলকে অপহরণ করে পাবনা জেলার চাটমোহর থানার বামনগ্রামের দুলাল সরকার (৩৯) ও তার ছেলে দিপু সরকার। এ ঘটনায় বাবুলের মা জোসনা বেগম বাদী হয়ে গত ২৫ জুলাই কালিয়া থানায় অপহরণ মামলা দায়ের করেন। পরে মোবাইল ট্র্যাকিংয়ের মাধ্যমে পুলিশ জানতে পারে অপহরণকারীরা বাবুলকে নিয়ে পাবনা জেলার আটঘরিয়া থানার রামচন্দ্রপুর এলাকায় অবস্থায় করছে।
পাবনা পুলিশের সহযোগিতায় গতকাল বুধবার (২৬ জুলাই) দুপুরে বাবুলকে উদ্ধার করা হয়। পরে বৃহস্পতিবার দুপুরে বাবুলকে নড়াইলে নিয়ে আসা হয়। এ ঘটনায় দুলাল সরকারের বাবা গোপেশ্বর চন্দ্র সরকারকে গ্রেফতার করা হয়েছে। গোপেশ্বর দাবি করে বলেন, পাবনা এলাকায় বিভিন্ন হাটবাজারে আমি এবং ছেলেরা মাছ বিক্রি করি। তার ছেলে নড়াইলে এসে বাবুলকে কেন, কীভাবে অপহরণ করেছিল, তা তিনি জানেন না।
সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন অতিরিক্ত পুলিশ সুপার জাহিদুল ইসলাম, সহকারী পুলিশ সুপার মেহেদী হাসান, সদর থানার ওসি দেলোয়ার হোসেন খান, ওসি (তদন্ত) জুলফিকার আলী, কালিয়া থানার ওসি শেখ গনি মিয়াসহ পুলিশ কর্মকর্তারা।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here