যশোরের বেনাপোল সীমান্তে বিজিবি কর্তৃক ২০ পিস স্বর্ণের বারসহ ১জন আটক।

0
94

আশানুর রহমান আশা, বেনাপোল থেকে : আজ ১৭ সেপ্টেম্বর খুলনা ব্যাটালিয়ন (২১ বিজিবি) গোপন তথ্যের ভিত্তিতে জানতে পারে যে, যশোরের শার্শা র্পুটখালী সীমান্ত দিয়ে স্বর্ণের একটি চালান অবৈধভাবে বাংলাদেশ থেকে ভারতে পাচার হতে পারে। উক্ত তথ্যের ভিত্তিতে খুলনা ব্যাটালিয়নের অধিনায়ক
বিএ-৬৫০৭ লেঃ কর্নেল মোহাম্মদ তানভীর রহমান, পিএসসি, ইঞ্জিনিয়ার্স এর নেতৃত্বে পুটখালী বিওপি’র একটি টহল দল সীমান্ত পিলার ১৭/৭ এস এর ১৬৮ আর পিলার হতে আনুমানিক ০৩ কিঃ মিঃ বাংলাদেশের অভ্যন্তরে বেনাপোল পোর্ট থানাধীন পুটখালী বালুন্ডা মহিষাকুড়া ব্রীজ এর পার্শ্বে পাকা রাস্তার উপর তল্লাশি অভিযান পরিচালনা করে। উক্ত তল্লাশি অভিযানে বিজিবি টহল দল কর্তৃক ২.৩৩৩ কেজি ওজনের মোট ২০ পিস স্বর্ণের বারসহ মোঃ হৃদয় হোসেন (২৩), পিতা-মোঃ রেজাউল ইসলাম, গ্রাম-কাগজ পুকুর, থানা-বেনাপোল পোর্ট, জেলা-যশোরকে আটক করা হয়। উক্ত স্বর্ণের বারগুলো আসামীর বাম হাতে থাকা টিয়া রঙের শপিং ব্যাগের মধ্যে অভিনব কায়দায় লুকায়িত ছিল। আটককৃত আসামী উক্ত স্বর্ণের বারগুলো সাতক্ষীরা মোড় নামক স্থান থেকে জনৈক ব্যক্তির নিকট হতে সংগ্রহ করেছে কিন্তু কার নিকট হতে সংগ্রহ করেছে তার নাম জানেনা। ধৃত আসামী স্বর্ণের বারগুলো পুটখালী সীমান্ত এলাকা দিয়ে ভারতে পাচার করতে চেয়েছিল যার আনুমানিক সিজার মূল্য-২,০০,৬৩,৮০০/- টাকা।

উল্লেখ্য, চলতি বছরে খুলনা ব্যাটালিয়নের দায়িত্বাধীন সীমান্ত এলাকা হতে ০৯ (নয়) বার ১১ জন আসামীসহ সর্বমোট ১৯ কেজি ৯০৭ গ্রাম স্বর্ণ আটক করা হয়েছে, যার মূল্য- ১৪,২৬,৫৯,৫৫০/- (চৌদ্দ কোটি ছাব্বিশ লক্ষ উনষাট হাজার পাঁচশত পঞ্চাশ) টাকা। নয় বারের মধ্যে আগস্ট ২০২২ মাসেই ০৪ (চার) বার এবং সেপ্টেম্বর-২০২২ মাসে ০৩ (তিন) বার স্বর্ণ আটক করা হয়েছে। চোরাচালান প্রতিরোধে খুলনা ব্যাটালিয়ন (২১ বিজিবি) সর্বদা তৎপরতা রয়েছে।