অভয়নগরে অজ্ঞান পাটির কবলে পড়ে পরিবারের ৪ জনকে অচেতন করে সর্বস্ব লুট

0
50

অভয়নগর(যশোর) প্রতিনিধি : যশোরের অভয়নগরে খাবারের সঙ্গে চেতনানাশক ওষুধ মিশিয়ে পরিবারের সবাইকে অচেতন করে সর্বস্ব লুট করে নিয়ে গেছে অজ্ঞান পাটির সদস্যরা। এঘটনায় একই পরিবারের ৪ সদস্য অচেতন হয়ে পড়লে তাদের উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে। বুধবার রাতে উপজেলার দিয়াপাড়া গ্রামের মো. আরিফ মোল্যার বাড়িতে এ ঘটনা ঘটে। ভুক্তভোগী পরিবার ও স্থানীয়দের সূত্রে জানা যায়, বুধবার রাতে অজ্ঞাতপরিচয় কেউ রান্নাঘরে ঢুকে কৌশলে তরকারির সঙ্গে চেতনানাশক ওষুধ মিশিয়ে রাখলে খাবারের পর পরিবারের সবাই অচেতন হয়ে পড়েন। সে সুযোগে সংঘবদ্ধ অজ্ঞান পার্টির সদস্যরা ঘরে ঢুকে আলমারি ভেঙে নগদ ২লাখ ৫০ হাজার টাকা, ১ ভরি সোনার অলঙ্কার, ২টি মোবাইল ফোনসেট,অনার্স পরীক্ষার প্রবেশপত্রসহ মোট ৪ লাখ টাকার মালামাল লুট করে নিয়ে যায়। এদিকে, বৃহস্পতিবার সকালে স্থানীয়রা বাড়ির কারো সাড়া-শব্দ না পেয়ে ঘরে ঢুকে সবাইকে অচেতন অবস্থায় দেখতে পান। পরে পরিবারের সদস্য মো. আরিফ মোল্যা (৫২), জুলেকা বেগম বেগম (৪০), আমেনা খাতুন (২০) ও জাকারিয়া হাসানকে (১৮) উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়। এ ব্যাপারে স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের চিকিৎসা কর্মকর্তা ডা. আলীমুর রাজীব জানান, বৃহস্পতিবার সকালে অচেতন অবস্থায় একই পরিবারের ৪ সদস্যকে ভর্তি করা হয়েছে। একজনকে ছাড়পত্র দেয়া হয়েছে। বাকি তিনজনকে হাসপাতালে রেখে চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে। এ বিষয়ে স্থানীয় বাসিন্দা সেলিম মোল্যা বলেন,এই অঞ্চলে এধরনের ঘটনা প্রায়ই ঘটে। রাতের বেলায় প্রশাসনের টহল বাড়ানোর জন্য জোর দাবি জানান তিনি। উপজেলার পাথালিয়া ক্যাম্পের আইসি উপপরিদর্শক মো. শামসুর রহমান ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, দিয়াপাড়া গ্রামটি অভয়নগর ও নড়াইল এর সীমান্তবর্তী এলাকা হওয়ায় কিছু দূষ্কৃতি অঘটন ঘটিয়ে চলে যায়। এই বিষয়ে ওসি মহোদয়ের সাথে কথা বলে ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।