নৌপথে ইউরোপে ঢোকার শীর্ষে বাংলাদেশি অভিবাসীরা

0
274

ম্যাগপাই নিউজ ডেক্স : ইউরোপে শরণার্থীদের উৎসস্থল হিসেবে একক দেশ হিসেবে সিরিয়া, আফগানিস্তান, ইরাককে ছাড়িয়ে বাংলাদেশ এখন শীর্ষে উঠে এসেছে। গত বছরের প্রথম তিন মাসে ইতালিতে অবৈধভাবে পাড়ি জমানো শরণার্থীদের মধ্যে মাত্র একজন বাংলাদেশি থাকালেও ২০১৭ সালে তা ২৮০০ জনে দাঁড়িয়েছে। এর মধ্য দিয়েই ইউরোপমুখী নৌকায় বাংলাদেশিদের সংখ্যাধিক্য তৈরি হয়েছে বলে জানানো হয়েছে।

এই শরণার্থীরা মূলত লিবিয়া হয়ে ইতালিতে ঢুকেছে। প্রতিবেদনে বলা হয়, বাংলাদেশ থেকে দুবাই হয়ে লিবিয়ায় পাড়ি জমায় এই শরণার্থীরা, এরপর ভূমধ্যসাগরে নৌকা ভাসায় ইতালির লক্ষ্যে।

ইউরোপে শরণার্থীদের রুট ও জনমিতির মানচিত্র বদলের এই তথ্য উঠে এসেছে আন্তর্জাতিক অভিবাসন সংস্থার (আইওএম) কর্মকর্তাদের কথায়।

তবে অবৈধভাবে ইউরোপে পাড়ি জমানো বাংলাদেশিদের এই সংখ্যাধিক্যের পেছনে রোহিঙ্গারাও একটি কারণ বলে মনে করছেন গবেষকরা। সেই সঙ্গে বাংলাদেশে রাজনৈতিকভাবে চাপের মুখে থাকা জামায়াতে ইসলামীর কর্মীরাও এই সংখ্যা বাড়িয়ে তুলেছে বলে তাদের ধারণা।

ইউরোপীয় ইউনিয়ন শরণার্থীদের ঢল সামলাতে কয়েক বছর আগে তুরস্কর সঙ্গে চুক্তির পর আজিয়ান সাগরের রুটটি দিয়ে অনুপ্রবেশ কমে গেলে ভূমধ্যসাগর হয়ে ইতালিতে পাড়ি জমানো বেড়ে যায়। সক্রিয় হয়ে ওঠে যুদ্ধবিধ্বস্ত লিবিয়ায় মানবপাচারকারীরাও।

আইওএম কর্মকর্তা ফ্লাভিও দি গিয়াকোমো ইনডিপেনডেন্টকে বলেন, ‘গত বছর মার্চ নাগাদ তিন মাসে ইতালিতে ঢোকা বাংলাদেশির সংখ্যা ছিল একজন। এই বছরে ওই সময়ে এই সংখ্যাটি দাঁড়িয়েছে ২৮৩১ জনে। এই তথ্যটি শরণার্থীদের জাতীয়তার পরিবর্তনের বিষয়টি মেলে ধরে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here