এফবিসিসিআইয়ের নির্বাচন সম্পন্ন, চলছে গণনা

0
270

নিজস্ব প্রতিবেদক : ব্যবসায়ী-শিল্পপতিদের শীর্ষ সংগঠন ফেডারেশন অব বাংলাদেশ চেম্বার্স অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রির (এফবিসিসিআই) ২০১৭-১৯ মেয়াদকালের নির্বাচনের ভোটগ্রহণ শেষ হয়েছে। এখন চলছে ভোট গণনা।

রাজধানীর আগারগাঁওয়ের বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে রবিবার সকাল ৯টা থেকে শুরু হওয়া এই ভোটগ্রহণ শেষ হয় বিকাল ৫টায়।

কথিত সমঝোতায় চেম্বার গ্রুপের সমর্থক ১৮ জন প্রার্থী ভোটবিহীন পরিচালক নির্বাচিত হয়েছেন। তবে  অ্যাসোসিয়েশন গ্রুপের প্রার্থীরা নির্বাচনে কঠোর অবস্থান নেওয়ায় সাধারণ ব্যবসায়ীরা ভোটাধিকার পাচ্ছেন।

নির্বাচনে ব্যবসায়ী ঐক্য ফোরামের প্রার্থীদের সঙ্গে সরকার সমর্থক একমাত্র সভাপতি প্রার্থী শফিউল ইসলাম মহিউদ্দিনের সম্মিলিত গণতান্ত্রিক পরিষদের প্রার্থীদের দ্বিমুখী হাড্ডাহাড্ডি লড়াইয়ের আভাস পাওয়া গেছে। আর দুই প্যানেলের প্রার্থীরাই নিজেদের সরকার সমর্থক হিসেবে হাজির করছেন ভোটারদের কাছে। দুই প্যানেলের ৩৬ জন প্রার্থীর মধ্যে যে ১৮ জন পরিচালক নির্বাচিত হবেন, তারাই অ্যাসোসিয়েশন গ্রুপের হয়ে সাধারণ ব্যবসায়ীদের প্রতিনিধিত্ব করছেন।

তথ্যমতে, এফবিসিসিআইর আগামী ২০১৭-১৯ মেয়াদের পরিচালক পদের সংখ্যা মোট ৬০টি। এর মধ্যে ২৪টি পরিচালক পদ বিভিন্ন চেম্বার ও অ্যাসোসিয়েশনের জন্য সংরক্ষিত। বাকি ৩৬ পদে নির্বাচন হওয়ার কথা থাকলেও চেম্বার গ্রুপের ১৮ জন প্রার্থী বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হয়েছেন। বাকি অ্যাসোসিয়েশন গ্রুপের ১৮টি পরিচালক পদে আজ এই ভোট গ্রহণ চলছে। এ ভোট গ্রহণ শেষে নির্বাচিত পরিচালকরা মিলে আগামী ১৬ মে এফবিসিসিআইর নতুন সভাপতি, প্রথম সহসভাপতি ও সহসভাপতি নির্বাচন করবেন।

জানা গেছে, সভাপতি পদে একজন প্রার্থী থাকলেও দুই সহসভাপতি পদে একাধিক প্রার্থী আছেন। আইন অনুযায়ী- এবার প্রথম সহসভাপতি হবেন চেম্বার গ্রুপ থেকে। এই পদে সম্ভাব্য প্রার্থী হলেন— শেখ ফজলে ফাহিম, এ কে এম শাহেদ রেজা ও বজলুর রহমান। আর অ্যাসোসিয়েশন গ্রুপের সহসভাপতি প্রার্থীরা হলেন— মীর নিজাম উদ্দিন আহমেদ, আবু নাসের ও আবদুল হক।

ব্যবসায়ী ঐক্য ফোরামের পরিচালক প্রার্থীরা হলেন— ড. কাজী এরতেজা হাসান, মনজুর আহমেদ, এম জি আর নাসির মজুমদার, হেলেনা জাহাঙ্গীর, ইসহাকুল হোসেন সুইট, এনায়েত হোসেন চৌধুরী, ওবায়দুর রহমান, শফিকুর রহমান ভুঁইয়া, মিজানুর রহমান বাবুল, গিয়াস উদ্দিন চৌধুরী খোকন, মোহাম্মদ জালাল উদ্দিন, তাহের আহমেদ সিদ্দিকী, ডা. মাহবুব হাফিজ, মোহাম্মদ উল্লাহ পলাশ, ফেরদৌস হুদা চৌধুরী, আমির উদ্দিন বিপু, রাব্বানী জব্বার ও আলী জামান।

সম্মিলিত গণতান্ত্রিক পরিষদের পরিচালক প্রার্থীরা হলেন— হাবিব উল্লাহ ডন, মীর নিজাম উদ্দিন আহমেদ, আবু নাসের, শফিকুল ইসলাম ভরসা, আবু মোতালেব, এস এম জাহাঙ্গীর হোসেন, শমী কায়সার, আমজাদ হোসেন, খন্দকার রুহুল আমিন, নিজাম উদ্দিন রাজেশ, হাফেজ হারুন, মুনতাকিম আশরাফ, খন্দকার মঈনুর রহমান জুয়েল, আনোয়ার হোসেন, আবদুল হক, শাফকাত হায়দার, আবুল আয়েছ খান ও রাশিদুল হাসান চৌধুরী রনি।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here