পাটকেলঘাটা সরুলিয়ায় মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে ‘রত্মগর্ভা’ মা বীনাপাণি ঘোষকে সংবর্ধনা প্রদান

0
366

মো. রিপন হোসাইন, পাটকেলঘাটা : পাটকেলঘাটায় সরুলিয়া মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে ‘রত্মগর্ভা’ মা বীনাপাণি ঘোষকে জাকজমকপূর্ণ পরিবেশে সংবর্ধনা দেওয়া হয়েছে। সরুলিয়া দ্বি-মুখি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের উদ্যোগে বেলা এগারটায় সংবর্ধনার আয়োজন করা হয়। বিদ্যালয় পরিচালনা পরিষদের সভাপতি আব্দুল লতিফ সরদারের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন তালা উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ঘোষ সনৎ কুমার। বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন বিশিষ্ট পরমাণু বিজ্ঞানী ড. মতিউর রহমান,সাবেক প্রধান শিক্ষক শেখ আব্দুল ওয়াদুদ, ভাইস চেয়ারম্যান ইখতিয়ার হোসেন, বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আমিরুল ইসলাম.আমিরুনেচ্ছা মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক বাবলুর রহমান। এসময় বীনাপাণি ঘোষ, ছেলে তথ্য মন্ত্রনালয়ের অতিরিক্ত সচিব তপন কুমার ঘোষ, আরেক ছেলে খুলনা কৃষি সম্প্রসারন অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক মোহন কুমার ঘোষ ও প্রভাষক কল্যাণ ঘোষ তাদের অনুভূতি ব্যক্ত করে বক্তব্য রাখেন।
সংবর্ধিত অতিথি বীনাপাণি ঘোষ বলেন, কঠোর অনুশাসন ও নৈতিকতা শিক্ষা দেওয়ার মাধ্যমে তিনি ৮ ছেলেমেয়েকে উচ্চ শিক্ষায় শিক্ষিত করতে পেরেছেন। তার আর চাওয়া-পাওয়ার তেমন কিছু নেই। জীবন সায়াহেৃ তিনি শুধু চান, সরুলিয়াতে নারী শিক্ষার প্রসারে একটি মহিলা কলেজ প্রতিষ্ঠিত হোক।
তথ্য মন্ত্রনালয়ের অতিরিক্ত সচিব ও বাংলাদেশ চলচ্চিত্র উন্নয়ন কর্পোরেশনের ব্যবস্থাপনা পরিচালক তপন কুমার ঘোষ বলেন, সরুলিয়া মাধ্যমিক বিদ্যালয় থেকে তার মা-বাবাসহ তারা সব ভাই-বোন লেখাপড়া করেছেন। বিদ্যালয়ের উন্নয়নে তিনি সাধ্যমত চেষ্টা করবেন। মা বীনাপাণি সম্পর্কে তিনি বলেন, ছোটবেলায় তারা সবক’টি ভাইবোন মাকে প্রচ- ভয় পেতেন। শ্রদ্ধাও করতেন তেমনি। তার মা তাদেরকে অহেতুক সময় নষ্ট করতে দিতেননা।
প্রধান অতিথি ঘোষ সনৎ বলেন,বক্তারা বলেন, বীনাপাণির মত মায়েরা দেশবাসির কাছে আদর্শ হিসেবে থাকবেন। কঠোর অনুশাসন ও নৈতিকতা শিক্ষা দেওয়ার মাধ্যমে তিনি ৮ ছেলেমেয়েকে উচ্চ শিক্ষায় শিক্ষিত করতে পেরেছেন।
বিশেষ অতিথির বক্তব্যে ড. এম মতিউর রহমান বলেন, তারও প্রত্যাশা ছেলে-মেয়েদেরকে প্রকৃত মানুুষ হিসেবে গড়ে তুলে শ্রীমতি বীনাপাণি ঘোষের মত ‘রত্মগর্ভা’ মা হিসেবে স্বীকৃতি পাক।
শেখ আব্দুল ওয়াদুদ বলেন, বীনাপাণি শব্দের অর্থ স্বরসতী। স্বরসতী বিদ্যার দেবী। বীনাপাণি বিদ্যার দেবী বলেই, তার ছেলে-মেয়েরা আজ উচ্চাসনে অধিষ্ঠিত হতে পেরেছেন।
এর আগে সংবর্ধিত অতিথিসহ অন্যান্য অতিথিবৃন্দকে বিদ্যালয়ের শিক্ষক,ছাত্র-ছাত্রীবৃন্দ ও পরিচালনা পরিষদের সদস্যারা ফুলেল শুভেচ্ছা জানান।
গত ১৪ মে ঢাকায় আজাদ প্রোডাক্টস লি: আয়োজিত অনুষ্ঠানে সরুলিয়ার বীনাপাণি ঘোষকে ‘রত্মাগর্ভা’ পুরস্কারে ভূষিত করা হয়। সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রী আসাদুজ্জামান নুর তাকে পুরস্কার প্রদান করেন। সরুলিয়া গ্রামের স্বর্গীয় খগেন্ত্রনাথ ঘোষ ও বীনাপাণি ঘোষ দম্পত্তির ৮ ছেলে-মেয়ে সবাই উচ্চ শিক্ষিত। বড় ছেলে অকাল প্রয়াত ড. প্রদীপ কুমার ঘোষ যুক্তরাস্ট্রের নিউইয়র্ক বিশ^বিদ্যালয়ের সহযোগী অধ্যাপক ছিলেন। মেঝ ছেলে সমীর কুমার ঘোষ অস্ট্রেলিয়ার ফাস্ট ব্যাংকের উর্দ্ধতন কর্মকর্তা। সেঝ ছেলে তপন কুমার ঘোষ তথ্য মন্ত্রনালয়ের অতিরিক্ত সচিব ও বাংলাদেশ চলচ্চিত্র উন্নয়ন কর্পোরেশনের ব্যবস্থাপনা পরিচালক। চতুর্থ সন্তান মোহন কুমার ঘোষ কৃষি সম্প্রসারন অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক। ছোট ছেলে কল্যাণ ঘোষ সফুরন্নেসা মহিলা কলেজের প্রভাষক। তিন মেয়ে মধ্যে চন্দনা ঘোষ নারীদের উন্নয়ন মুলক কর্মকা-ে সংশ্লিষ্ট। কৃষ্ণা ঘোষ শিক্ষিকা এবং শ্যামলী ঘোষ মার্কিন যুক্তরাস্ট্রের একটি বহুজাতিক কোম্পানীর উর্দ্ধতন কর্মকর্তা।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here