ম্যাটস্ শিক্ষার্থীদের লাঠিপেটা করলেন সেটেলমেন্ট অফিসার!

0
349

ম্যাগপাই নিউজ ডেক্স : নোয়াখালীতে সেটেলমেন্ট অফিসের এক কর্মকর্তার বিরুদ্ধে মেডিকেল এ্যাসিস্টেন্ট ট্রেনিং স্কুলের (ম্যাটস্) আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদেরকে লাঠিপেটার অভিযোগ পাওয়া গেছে। ওই সময় ধারণকৃত ভিডিও চিত্র সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়লে এ নিয়ে সমালোচনার ঝড় ওঠে। ওই কর্মকর্তার বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা গ্রহনের দাবি তোলেন অনেকে। অভিযুক্ত মিজানুর রহমান নোয়াখালী জোনাল সেটেলমেন্ট অফিসের সহকারী সেটেলমেন্ট অফিসার।

নোয়াখালী ম্যাটস্’র ৩য় বর্ষের ছাত্র ও বঙ্গবন্ধু ডিপ্লোমা মেডিকেল স্টুডেন্টস্ এসোসিয়েশনের জেলা শাখার সভাপতি আর এইচ রিফাত জানান, দেশের বিভিন্ন স্থানে ম্যাটস্ শিক্ষার্থীদের শান্তিপূর্ণ কর্মসূটিতে হামলা ও গ্রেফতারের প্রতিবাদে বৃহস্পতিবার বিকেলে তারা শহরে মৌন মিছিল শেষে জেলা প্রসাশকের কার্যালয়ের সামনে শান্তিপূর্ণভাবে অবস্থান কর্মসূচি পালন করছিল। এ সময় পুলিশ এসে তাদেরকে বাধা দেয়। এরপর শিক্ষার্থীরা ক্যাম্পাসে ফিরে আসার পথে পুলিশ তাদেরকে লাঠিপেটা করে। এ সময় সহকারী সেটেলমেন্ট অফিসার মিজানুর রহমান লাঠি নিয়ে ক্যাম্পাসের ভেতর প্রবেশ করে ছাত্রছাত্রীদেরকে বেধড়ক পিটিয়ে আহত করেন। হামলায় ৩০ জন ছাত্রছাত্রী আহত হয় বলে দাবি করেন তিনি। মিজানুর রহমান, ছাত্রীদের গায়ে হাত দেন বলেও অভিযোগ করেন রিফাত।

জেলা সদরের সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার (এএসপি) জসিম উদ্দিন চৌধুরী জানান, শিক্ষার্থীদেরকে জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের সামনে থেকে সরিয়ে দিয়েই তারা ক্ষিপ্ত হয়ে পুলিশের পিকআপ ভ্যান ও পৌর পার্কের বাতি ভাঙচুর করে। এক পর্যায়ে শিক্ষার্থীদেরকে ছত্রভঙ্গ করতে লাঠিচার্জ করে পুলিশ।

সহকারী সেটেলমেন্ট অফিসার মিজানুর রহমান শিক্ষার্থীদেরকে লাঠিপেটার কথা স্বীকার করে বলেন, জেলা প্রশাসক মহোদয়ের কার্যালয়ের সামনে ছাত্রছাত্রীদের কয়েকজন আমার সাথে চরম দুর্ব্যবহার করে। এতে ক্ষুদ্ধ হয়ে আমি যা করার তাই করেছি।

এ ব্যপারে জেলা পুলিশ সুপার মো. ইলিয়াছ শরীফ বলেন, সত্যিই যদি এমন কিছু হয়ে থাকে তাহলে তা বেআইনী। আইন হাতে তুলে নেয়ার অধিকার কারো নেই এবং কেউই আইনের উপরে নন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here