যশোরের ভিক্ষুকের টাকা ছিনতাই, অভিযোগে ৬ জনের নামে মামলা

0
233

বিশেষ প্রতিনিধি : এক ভিক্ষুককে গতিরোধ করে তার উপার্জিত টাকা ছিনিয়ে নেওয়ার ঘটনায় আদালতের নির্দেশে ৬ জনের নাম উল্লেখ করে কোতয়ালি মডেল থানায় মামলা দায়ের করা হয়েছে। পিরোজপুর জেলার মঠবাড়িয়া উপজেলার বড় শৌলা গ্রামের বর্তমানে যশোর নুরপুর (তোলা) এলাকার মৃত আহমদ আলীর স্ত্রী ভিক্ষুক হালিমা বেগম বাদি হয়ে আদালতে পিটিশন দায়ের করলে বিজ্ঞ আদালতের বিচারকের নির্দেশে রোববার মামলাটি রুজু করা হয়। মামলার আসামীরা হচ্ছে,যশোর সদর উপজেলার ছাতিয়ানতলার হবি মন্ডলের ছেলে মাসুদ,দোগাছিয়া গ্রামের শওকত ওরফে সাদেকের ছেলে সরোয়ার,চুড়ামনকাটি(ঘোনা) গ্রামের মৃত আলী বক্সের ছেলে আবুল (বাঙ্গাল),চুড়ামনকাটি কুটিপাড়ার নিয়ামতের ছেলে আল আমিন,ঝাউদিয়া (ডাঙ্গির পাড়া) গ্রামের ফজলুর ছেলে তরিকুল ও সদর উপজেলার বোলতলা গ্রামের আলী আহম্মেদের ছেলে রাজুসহ অজ্ঞানামা ২/৩জন।
বিধবা হালিমা বেগম আদালতে দায়েরকৃত পিটিশনে উল্লেখ করেন,আসামীরা সন্ত্রাসী প্রকৃতির। গত ১৬ মে তিনি চুড়ামনকাটি বাজার টেম্পু স্ট্যান্ডে পৌছালে উল্লেখিত আসামীরা পূর্ব পরিকল্পিতভাবে তার গতিরোধ করে। তার কাছে ভিক্ষাবৃত্তির উপার্জিত অর্থ চায়। দিতে অপরাগতা প্রকাশ করলে তাকে ইট দিয়ে মারপিট করে কাছে থাকা নগদ ২৭৩৩ টাকা মাসুদ কেড়ে নেয়। মাসুদ ছাড়াও অন্যান্য আসামীরা মারপিট ও সহযোগীতা করে। গুরুতর আহত অবস্থায় হালিমাকে যশোর জেনারেল হাপসাতালে ভর্তি করা হয়। সেখান থেকে তিনি সুস্থ্য হয়ে কোতয়ালি মডেল থানায় এজাহার দায়ের করতে গেলে আদালতে যাওযার পরামর্শ দেন। তিনি গত ২২ মে আদালতে পিটিশন নং ১৫৬/১৭ দায়ের করেন। আমলী আদালত কোতয়ালির সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট পিটিশন আমলে নিয়ে কোতয়ালি মডেল থানার অফিসার ইনচার্জকে এজাহার হিসেতে নথিভূক্ত করতে নির্দেশ দিলে মামলা হিসেবে নথিভূক্ত হয়।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here