যশোরে বৃষ্টি ‘হত্যার’ বিচার দাবিতে সংবাদ সম্মেলন

0
289

স্টাফ রিপোর্টার : যশোর এম এম কলেজের মেধাবী ছাত্রী গৃহবধূ আসপিয়া খাতুন বৃষ্টি ‘হত্যাকাণ্ডে’ জড়িতদের আটক এবং বিচারের দাবি করেছেন তার পরিবার সদস্য এবং এলাকাবাসী। এই সংবাদ সম্মেলনে এম এম কলেজের সাবেক অধ্যক্ষ অধ্যাপক আফসার আলীও উপস্থিত ছিলেন।

সোমবার দুপুরে প্রেসক্লাব যশোরে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে এ দাবি জানানো হয়। এতে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন বৃষ্টির বাবা শহরের বারান্দীপাড়া কদমতলা এলাকার আসলাম হোসেন।
লিখিত বক্তব্যে বলা হয়, ‘বাঘারপাড়া উপজেলার ভায়না গ্রামের সদরুল আলম প্রিন্সের সঙ্গে ২০১১ সালের ১৮ নভেম্বর বৃষ্টির বিয়ে হয়। বিয়ের পর থেকে তার স্বামী প্রিন্স, প্রিন্সের বাবা তৌহিদুর রহমান, শাশুড়ি আঙ্গুরা বেগম, ননদ সাদিয়া তামান্না, সাদিয়ার স্বামী কামরুজ্জামান বিদ্যুৎ যৌতুকের দাবিতে শারীরিক ও মানসিক নির্যাতন করে আসছিলেন। মেয়ের ভবিষ্যতের কথা চিন্তা করে জামাইকে কয়েক দফায় মোট সাড়ে আট লাখ টাকা যৌতুক দেওয়া হয়। এতেও সন্তুষ্ট হয়নি প্রিন্স। গত ১ ফেব্রুয়ারি সন্ধ্যা ৭টার দিকে বৃষ্টিকে উল্লিখিতরা মারপিট করে বালিশ চাপা দিয়ে হত্যা করে। বৃষ্টির চার বছরের শিশু মেয়ে নুসরাত সব কিছু দেখেছে।’
জানানো হয়, এ ঘটনায় নিহতের বাবা আসলাম হোসেন বাদী হয়ে কোতয়ালী থানায় একটি মামলা করেন। পুলিশ ঘটনার সঙ্গে জড়িত অভিযোগে তামান্নাও তার স্বামী বিদ্যুৎকে আটক করেছে।
সংবাদ সম্মেলনে অন্য অভিযুক্তদের গ্রেফতার ও বিচারের দাবি জানানো হয়।
সংবাদ সম্মেলনে অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন বৃষ্টির মা রোকেয়া সুলতানা, এলাকাবাসীর পক্ষে কামাল হোসেন, বিপ্লবকুমার এবং আম্বিয়া মঞ্জুর মুক্তা।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here