যশোর জেলা গোয়েন্দা শাখা পুলিশের হাতে ট্রাক বোঝাই এমওপি সারসহ গ্রেফতার-৩

0
230

বিশেষ প্রতিনিধি: সরকারি সার উচ্চ মূল্যে বিক্রয়ের উদ্দেশ্যে ট্রাক বোঝাই করে নিয়ে যাবার সময় জেলা গোয়েন্দা শাখা (ডিবি) পুলিশের একটি টিম ৭৪০বস্তা এমওপি সার উদ্ধার করেছে। এ সময় চালক হেলপারসহ তিনজনকে গ্রেফতার করেছে। এরা হচেছ,যশোর সদর উপজেলার সীতারামপুর গ্রামের আমির হেসেনের ছেলে সগির হোসেন,ঝিকরগাছা উপজেলার বোধখানা গ্রামের মৃত তাহাজ্জাত আলীর ছেলে ইমামুল হোসেন ও শহরের বকচর জনৈক আব্দার বাড়ির ভাড়াটিয়া আব্দুস সাত্তারের ছেলে আবুল কাশেম। এ সময় পলাতক আসামী হিসেবে যশোরের ষ্টেশন নওয়াপাড়া অভয়নগর উপজেলার পোষ্ট অফিসের সামনে মেসার্স জুয়েল এন্টার প্রাইজের জাহিদ হোসেন ও দিনাজপুর জেলার ফুলবাড়ি উপজেলার জাহিদুল ইসলাম পিন্টু উল্লেখ করেছে।
জেলা গোয়েন্দা শাখা ডিবি’র এসআই মাসুদ রানা কোতয়ালি থানায় দায়েরকৃত এজাহারে বলেছেন, বুধবার সকালে গোপন সূত্রে খবর পান ষ্টেশন নওয়াপাড়া অভয়নগর উপজেলা এলাকা থেকে একটি ট্রাক বোঝাই করে সরকারি এমওপি সার দিনাজপুরে বিক্রয়ের উদ্দেশ্যে যাচ্ছে। সকাল সোয়া ১০ টার পর যশোর ঝিনাইদহ সড়কের চুড়ামনকাটি চৌগাছা মোড় নামকস্থানে (যশোর ট-১১-৪০২৯) সার বোঝাই ট্রাক থামার সংকেত দেয়। ট্রাকের চালক সগির ও হেলপার ইমামুল হোসেনসহ আবুল কাশেম দৌড়ে পালানোর চেষ্টা করলে তাদেরকে ধরে ফেলে। পরে তাদের কাছ থেকে দু’টি চালান উদ্ধার করা হয়। ট্রাকে থাকা এমওপি উল্লেখিত পরিমান সার উদ্ধার করে। পুলিশের ধারনা সরকারী সার উচ্চ মূল্যে বিক্রয় ও নিজে লাভবান হওয়ার জন্য দিনাজপুরে পাচার করা হচ্ছিল। ধৃত আসামীদের মধ্যে আবুল কাশেমের বকচর জনৈক আব্দারের বাড়ির ভাড়াটে হিসেবে দেখানো হয়েছে তার স্থায়ী বাড়ি এজাহারে উল্লেখ করা হয়নি। সার ব্যবসায়ীরা জানায়, জেলা গোয়েন্দা শাখা সার বোঝাই ট্রাক জব্দ ও চালক হেলপার ও এক ব্যক্তিকে গ্রেফতার করে মোটা অংকের উৎকোচ দাবি করে। সকাল থেকে সার সংক্রান্ত ব্যাপারে বিভিন্ন দেন দরবার চালানোর এক পর্যায় রাতে এজাহার কোতয়ালি থানায় নিয়ে গেলে থানা পুলিশ এজাহার হিসেবে নথিভূক্ত করে।#

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here