‘রাজনীতি’তে ঝুঁকছে দর্শক, বাড়ছে হল সংখ্যাও

0
241

জলসা ডেস্ক: দেশীয় নির্মিত ছবি বলে কিনা ‘রাজনীতি’কে তাচ্ছিল্য করেছিল হল মালিকেরা। কিন্তু ঈদের মুক্তি পাওয়া অন্য দুই বিগ বাজেটের ছবিকে (যৌথ প্রযোজনা) টেক্কা দিয়ে এখনও দাপট অব্যাহত রেখেছে শাকিব খান ও অপু বিশ্বাস অভিনীত ‘রাজনীতি’। শুধু তাই নয়, হল থেকে বের হওয়ার পর ছবিটি নিয়ে প্রশংসায় ভাসাচ্ছেন দর্শকরা।

সিনে-আলোচকরা মনে করছেন, চলমান নোংরা রাজনীতির শিকার হয়েছে বুলবুল বিশ্বাস পরিচালিত একমাত্র দেশীয় ছবিটি। তবে নবাব ও বস-২ ছবি দুটির মতো বেশী সিনেমা হল না পেলেও এখন পর্যন্ত মৌলিক গল্প হিসেবে প্রশংসা কুড়াচ্ছে শাকিব-অপু অভিনীত ‘রাজনীতি’। আর তারই উৎকৃষ্ট উধাহারণ, দ্বিতীয় সপ্তাহে এসে ‘রাজনীতি’র হল বাড়ার খবরটি!

এবছর ঈদুল ফিতরে সারা দেশের ২৭৫টি সিনেমা হলে মুক্তি পেয়েছে তিনটি ছবি শাকিব খান ও অপু বিশ্বাস অভিনীত ‘রাজনীতি’, শাকিব খান ও শুভশ্রী অভিনীত ‘নবাব’ এবং কলকাতার জিৎ, শুভশ্রী ও বাংলাদেশের নুসরাত ফারিয়া অভিনীত ‘বস টু’। পরেই দু’টি ছবিই যৌথ বাংলার। যা নিয়ে ঈদের আগে কম জল ঘোলা হয়নি। তারপরও ঈদে যৌথ প্রযোজনা ছবি দুটির দখলে বাংলাদেশের ২৩৫টি হল, সেখানে রাজনীতির দখলে মাত্র ৪০টি হল।

যাই হোক, রাজনীতি যে হল মালিকদের সিদ্ধান্তকে ভুল প্রমাণিত করতে সক্ষম হয়েছেন তা ইতোমধ্যে বোঝা যাচ্ছে। কিছুদিন আগেই দর্শকদের চাহিদার কথা মাথায় রেখে হলিউডের পাওয়ার রেঞ্জারর্স এর প্রদর্শনী বন্ধ করে রাজনীতি ছবিটির প্রদর্শনী বাড়ায় ব্লকবাস্টার।

এদিকে, ব্লকবাস্টার ছাড়া ঢাকার কোনো সাধারণ হলে মুক্তি না পাওয়া শাকিব-অপু ভক্তদের মধ্যে একটা আক্ষেপ শোনা যাচ্ছিল। দেশের বাইরের দর্শকদের কাছ থেকে রাজনীতি ছবিটির প্রশংসার পর তো সেটা আরও বেড়ে যায়। তাই তো দর্শকদের চাহিদার কথা মাথায় রেখে আরও ২০টির মতো হল ছবিটির প্রদর্শনের জন্য আবেদন জানিয়েছে। তবে এখনও নিশ্চিত নয়, ঢাকার কোনো প্রেক্ষাগৃহে ছবিটি প্রদর্শন করা হবে কিনা।

এ বিষয়ে ‘রাজনীতি’র নির্মাতা বুলবুল বিশ্বাস জানান, ইতিমধ্যে সামনের সপ্তাহের জন্য আরও ২০টার মতো হলে ‘রাজনীতি’ বুক হয়েছে। তবে ফাইনাল সংখ্যা বুধবার জানাতে পারবো। তিনি আরও বলেন, সিনেমা নিয়ে যে পলিটিক্স শুরু হয়েছে একেবারে নিশ্চিত না হয়ে কিছুই বলা যাচ্ছে না।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here