সেন্সর বোর্ডের মামলা নিচ্ছে না রমনা থানা!

0
231

জলসা ডেস্ক: ২১ জুন এভাবেই লাঞ্ছিত হন ইফতেখারউদ্দিন নওশাদযৌথ প্রযোজনার অনিয়ম বন্ধের দাবিতে ২১ জুন সেন্সর বোর্ড ঘেরাও করে চলচ্চিত্র ঐক্যজোট। সেখানে অপ্রীতিকর পরিস্থিতির শিকার হন বাংলাদেশ চলচ্চিত্র সেন্সর বোর্ডের সদস্য ও মধুমিতা প্রেক্ষাগৃহের কর্ণধার ইফতেখারউদ্দিন নওশাদ।

সেদিন দুপুরে তাকে শারীরিকভাবে লাঞ্ছিত করা হয় তাকে। বিষয়টি নিয়ে বেশ ক্ষোভ প্রকাশ করে চলচ্চিত্র মালিক সমিতি ও পরিবেশক সমিতি। পাশাপাশি নওশাদ সেন্সর বোর্ডের সদস্য হওয়ায় বোর্ড সদস্যরাও বেশ ক্ষুদ্ধ। শোনা গিয়েছিল, বিষয়টি নিয়ে মামলা করতে যাচ্ছে সেন্সর বোর্ড।
কিন্তু খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, ইচ্ছে থাকলেও মামলাটি তারা এখন পর্যন্ত করতে পারেননি। কারণ রমনা থানা তাদের মামলাটি গ্রহণ করেনি। পুরো বিষয় নিয়ে কথা হয় ইফতেখারউদ্দিন নওশাদের সঙ্গে। তিনি মঙ্গলবার ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন, ‌‘মাত্রই আমি সেন্সর বোর্ড চেয়ারম্যানের (মরতুজা আহমদ) সঙ্গে বিষয়টি নিয়ে কথা বললাম। আমরা বোর্ড থেকে মামলা করতে গিয়েছিলাম। কিন্তু কোনও এক অদ্ভুত কারণে রমনা থানা আমাদের মামলাটি নেয়নি। পরে চেয়ারম্যান বললেন ব্যক্তিগত উদ্যোগে এটি করতে। তারা আমার পাশে থাকবেন।’
এদিকে সেদিন আসলে কী ঘটেছিল- জানতে চাইলে নওশাদ বলেন, ‘আমি যৌথ প্রযোজনার ছবি দুটির (নবাব ও বস-টু) প্রিভিউ করতে সেন্সর বোর্ডে যাই। বোর্ডের সদস্য হিসেবে সরকারি কাজে আমি সেখানে যাই। গেটে ঢোকার আগমুহূর্তে মিশা সওদাগর আমাকে ডাক দেন। সঙ্গে ছিলেন চিত্রনায়ক রিয়াজ ও প্রযোজক নেতা খোরশেদুল আলম খসরু। আমার গায়ে প্রথমে হাত দেয় রিয়াজ। এরপর আঘাত করেন মিশা। তারপরই অন্যরা চলে আসে।’
এদিকে বর্ষীয়ান এ চলচ্চিত্র কর্মী জানালেন, শিগগিরই তিনি মামলা করতে যাচ্ছেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here