মিথ্যা সংবাদের বিরুদ্ধে চৌগাছায় ছাত্রলীগের মানবন্ধন, দুই সাংবাদিকের নামে মামলা!

0
57

নিজস্ব প্রতিনিধি

যশোরের চৌগাছা সদর ইউনিয়ন ছাত্রলীগের যুগ্ম-আহবায়ক জিহাদ হোসেনকে মাদক ব্যবসায়ী বলে মিথ্যা সংবাদ প্রকাশ করায় মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সমাবেশ করেছে ছাত্রলীগ নেতাকর্মীরা। বুধবার বেলা দশটা ১৫ মিনিটে শহরের মুক্তিযুদ্ধ ভাস্কর্য মোড়ে এই মানববন্ধন ও সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়।
এছাড়াও ছাত্র নেতা জিহাদ বাদী হয়ে যশোর আদালতে চৌগাছার দুই সাংবাদিকের নামে মামলা দায়ের করেছেন।
মানববন্ধনে উপজেলা ছাত্রলীগের যুগ্ম-আহবায়ক হাসান রেজা এবং যুগ্ম-আহবায়ক ফিরোজ হোসেন বক্তব্য দেন। প্রায় আধা ঘন্টাব্যাপি অনুষ্ঠিত মানববন্ধনে উপজেলা ও চৌগাছা সদর ইউনিয়ন ছাত্রলীগের অর্ধশতাধিক নেতৃবৃন্দ অংশগ্রহণ করেন।
বক্তারা বলেন, কয়েকমাস আগে র‌্যাবের হাতে চোরাই মোটরসাইকেলসহ গ্রেপ্তার মটরসাইকেল চোর চক্রের সদস্য কথিত সাংবাদিক এহসান জামিল উপজেলার বিভিন্ন ব্যক্তির কাছে মোবাইলে ও সামনাসামনি চাঁদা দাবি করে। চাঁদা দিতে অস্বীকার করায় চৌগাছা সদর ইউনিয়ন ছাত্রলীগের যুগ্ম আহবায়ক জিহাদ হোসেনকে মাদক ব্যবসায়ী সাজিয়ে স্থানীয় দুটি পত্রিকায় (গ্রামের কাগজ ও প্রতিদিনের কথা) গত ৩ এপ্রিল সংবাদ প্রকাশ করে।
নেতৃবৃন্দ বলেন, জিহাদের নামে বাংলাদেশের কোন থানায় কোন মামলা না থাকলেও শুধুমাত্র হীন স্বার্থ চরিতার্থ করতে মোটরসাইকেল ও সাইকেল চোর চক্রের সক্রিয় সদস্য কথিত সাংবাদিক এহসান জামিল তার নামে মিথ্যা, ভিত্তিহীন ও বানোয়াট সাংবাদ প্রকাশ করেছে। এজন্য ওইদুটি পত্রিকার সাংবাদিকের প্রকাশ্যে নিঃশর্ত ক্ষমা চাইতে হবে। অন্যথায় আমরা নিয়মতান্ত্রিক আন্দোলনের মধ্য দিয়ে তাদের ক্ষমা চাইতে বাধ্য করবো। তারা বলেন, জিহাদ হোসেন একজন তরুন ছাত্রলীগ নেতা হয়েও গত ইউপি নির্বাচনে ইউপি সদস্য পদে প্রতিদ্বন্দ্বীতা করে ২শ এর উপরে ভোট পান। এজন্য তাকে জনসম্মুখে হেয় প্রতিপন্ন করতে ওই দুই সাংবাদিক তার নামে সম্পূর্ণ মিথ্যা, ভিত্তিহীন ও বানোয়াট সংবাদ প্রকাশ করেছে। আমরা এর তীব্র নিন্দা জানাই এবং প্রশাসনের প্রতি আহবান জানাই এই সাংবাদিকের বিরুদ্ধে অবিলম্বে ব্যবস্থা নিতে হবে।

তারা আরও বলেন,ক’দিন আগেও চোরাই মোটরসাইকেলসহ র‌্যাবের হতে গ্রেপ্তার হওয়া কথিত ওই সাংবাদিক এহসান জামিলের একটি অডিও ফেসবুকে ভাইরাল হয়েছে। সেখানে তিনি মাদক ব্যবসায়ীদের কাছ থেকে টাকা নিয়ে তাদের নাম সংবাদে প্রকাশ করা থেকে বিরত থেকেছেন বলে নিজেই স্বীকার করেছেন। একইসাথে জিহাদ হোসেনের নামে মিথ্যা নিউজ করেছেন বলেও স্বীকার করেছেন। ওই অডিওতে জামিল বলেছেন ‘সব মাদক ব্যবসায়ীদের সব ধরনের সুযোগ দেয়া হয়েছে। তারা ব্যবসা করছেন বলেই জামিলের ক্লাব থেকে এই টাকা কালেকশনের দায়িত্ব দেয়া হয়েছে বলেও জামিল অডিওতে দাবি করেছে।’ তারা বলেন, জামিল এই ভাইরাল ভিডিও থেকে স্পষ্ট বোঝা গেছে টাকার বিনিময়ে জামিল মাদক ব্যবসায়ীরা যেন নির্বিঘেœ ব্যবসা করতে পারে তার ব্যবস্থা করেছে। এই ধৃষ্টতা জামিল কিভাবে পায় এই প্রশ্নও রাখেন তারা।
এদিকে মিথ্যা ও ভিত্তিহীন সাংবাদ প্রকাশ করায় গ্রামের কাগজের চৌগাছা অফিস প্রধান শাহানুর আলম উজ্জল এবং প্রতিদিনের কথার চৌগাছা প্রতিনিধি এহসান জামিলের বিরুদ্ধে আদালতে একটি মানহানী মামলা করেছেন চৌগাছা সদর ইউনিয়ন ছাত্রলীগের যুগ্ম আহবায়ক জিহাদ হোসেন। মঙ্গলবার যশোরের জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আমলী আদালতে তিনি এই মামলা করেন। আদালতের বিচারক অবন্তিকা রায় অভিযোগ আমলে নিয়ে পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই)যশোরকে বিষয়টি তদন্ত করে প্রতিবেদ দাখিলের জন্য নির্দেশ দিয়েছেন।
বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন বাদির আইনজীবী ও যশোরের সাবেক পাবলিক প্রসিকিউটর (পিপি) এ্যাডভোকেট আবুল হোসেন।