নওয়াপাড়ায় ছাত্রলীগ নেতাকে মারপিট : দুই পুলিশ সদস্যকে অপসারণের দাবিতে আ.লীগের সড়ক অবরোধ

0
216

অভয়নগর (যশোর) প্রতিনিধি : নওয়াপাড়ায় তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে ছাত্রলীগ নেতার গায়ে হাত দেয়ায় প্রতিবাদে ও অভয়নগর থানার এএসআই রমজান এবং পুলিশ সদস্য মেহেদীকে অপসারণের দাবীতে বিক্ষুব্ধ নেতাকর্মীরা যশোর-খুলনা মহাসড়ক অবরোধ করে। পরে অভয়নগর থানার ওসি আনিসুর রহমানের আশ্বাস ও প্যানেল মেয়র রবিন অধিকারী ব্যাচার মধ্যস্ততায় বিক্ষুব্ধ নেতাকর্মীরা অবরোধ তুলে নেই। ঘটনাটি ঘটে বৃহস্পতিবার বেলা ২ টায় অভয়নগর থানা চত্বরে। বেলা ৩ টা থেকে সাড়ে ৩ টা পর্যন্ত যশোর-খুলনা মহাসড়কের নূরবাগ মোড়ে বিক্ষুব্ধ ছাত্রলীগ নেতাকর্মীরা সড়ক অবরোধ করে প্রতিবাদ সমাবেশ করে। এ সময় যশোর-খুলনা মহাসড়কের দু’পাশে যানবাহনের দীর্ঘ লাইন পড়ে যায়।
জানা গেছে, নওয়াপাড়া পৌর ছাত্রলীগের মাহমুদ হাসান ও রাফিউজ্জামান সার্টিফিকেট হারিয়ে যাওয়ায় অভয়নগর থানায় জিডি করতে যায়। জিডিতে কিছু ভুল থাকায় সংসধন করতে বলে পুলিশ। সংবাদ পেয়ে নওয়াপাড়া পৌর ছাত্রলীগের সিনিয়র সহ-সভাপতি ও রেনেসাঁ অভয়নগর নওয়াপাড়ার প্রতিষ্ঠাতা সাধারণ সম্পাদক পার্থ প্রতীম সুর ও মাফি থানার মধ্যে থাকা বহিরাগতদের বসবার স্থানে গিয়ে বসেন এবং মাহমুদ হাসান ও রাফিউজ্জামানের জিডি সংশোধন করেন। বসবার স্থানে অপরিচিত এক যুবককে বসে থাকতে দেখে তার নিকট পরিচয় জানতে চাইলে উভয়ের মধ্যে বাকবিতন্ডা শুরু হয়। এক পর্যায়ে সাধারণ বেসে থাকা যুবক দৌড়ে থানার ভিতর থেকে অন্যান্য পুলিশ সদস্য ও এএসআই রমজানকে ডেকে নিয়ে আসে। কোন কিছু না শুনে থানার মধ্যে দাড়িয়ে এএসআই রমজান পৌর ছাত্রলীগের সিনিয়র সহ-সভাপতি ও রেনেসাঁ অভয়নগর নওয়াপাড়ার প্রতিষ্ঠাতা সাধারণ সম্পাদক পার্থ প্রতীম সুরের গায়ে হাত তোলেন, সেই সুযোগে পুলিশ সদস্য মেহেদী ছাত্রলীগ নেতা মাহমুদ হাসানকে মারপিট শুরু করে। বিষয়টি ছাত্রলীগ নেতাকর্মীদের মধ্যে ছড়িয়ে পড়লে বিক্ষুব্ধ নেতাকর্মীরা নূরবাগ মোড়ে জড়ো হয়ে মাহসড়ক অবরোধ করে এএসআই রমজান ও সাধারণ পোষাকে থাকা যুবক পুলিশ সদস্য উপজেলার সিদ্ধিপাশা পুলিশ ক্যাম্পের মেহেদীর অপসারণ দাবীতে প্রতিবাদ সভা করে। প্রতিবাদ সভার সভাপতিত্ব করেন নওয়াপাড়া পৌর ছাত্রলীগের সভাপতি কামরুজ্জামান মিলন।

এ সময় বক্তব্য রাখেন রেনেসাঁ অভয়নগর নওয়াপাড়ার প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি ও দৈনিক নওয়াপাড়ার বার্তা সম্পাদক হারুন অর রশিদ, উপজেলা ছাত্রলীগের যুগ্ম আহবায়ক ও কেন্দ্রীয় আইন ছাত্র পরিষদের সাংগঠনিক সম্পাদক রওশন কবীর টুটুল, পৌর ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক সাব্বির আহম্মেদ শান্ত, আহত পৌর ছাত্রলীগের সিনিয়র সহ-সভাপতি ও রেনেসাঁ অভয়নগর নওয়াপাড়ার প্রতিষ্ঠাতা সাধারণ সম্পাদক পার্থ প্রতীম সুর, নওয়াপাড়া কলেজ ছাত্রলীগের সভাপতি দিনার, ছাত্রলীগ নেতা মিল্টন, শাওন গাজী প্রমুখ। অবরোধ ও প্রতিবাদ সভা চলাকালে অভয়নগর থানার ওসি আনিসুর রহমান ঘটনাস্থলে আসেন এবং বিক্ষুব্ধ নেতাকর্মীদের উদ্দেশ্যে বলেন, সন্ধ্যার মধ্যে তদন্তপূর্বক দোষী পুলিশ কর্মকর্তা ও সদস্য মেহেদীর বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। ওসির আশ্বাস ও প্যানেল মেয়র রবিন অধিকারী ব্যাচার মধ্যস্থতায় ছাত্রলীগ নেতাকর্মীরা অবরোধ প্রত্যাহার করেন। তবে ২৪ ঘন্টার মধ্যে হামলাকারী এএসআই রমজান ও পুলিশ সদস্য মেহেদীকে থানা থেকে প্রত্যাহার করা না হলে কঠোর কর্মসূচি প্রদাণের ঘোষণা দেন ছাত্রলীগ নেতাকর্মীরা।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here