পাটকেলঘাটায় জামায়াত শিবিরের তান্ডবে ১০ পরিবার বাড়িছাড়া

0
313

মো. রিপন হোসাইন : পাটকেলঘাটার কুমিরায় জামায়াত শিবিরের অব্যহত তান্ডবে নিরীহ ওসমান গণির পরিবার সহ আশেপাশের ১০ পরিবারের নারীপুরুষ গত এক সপ্তাহ ধরে বাড়িঘর ছেড়ে জীবনের ভয়ে পালিয়ে বেড়ানোর অভিযোগ পাওয়া গেছে। ভুক্তভোগীদের অভিযোগ থানার কুমিরা গ্রামের বসবসরত জামায়াত কর্মী ও অর্থ যোগানদাতা মাওঃ আমজাদ হোসেন ও তার পুত্র শিবির নেতা হাসান শেখ (২৮) এর নেতৃত্বে গত ২৮ ফেব্রুয়ারী বহিরাগত ভাড়াটিয়া সন্ত্রাসীদের নিয়ে ওসমান গণি সহ নিরীহ ৮-১০ পরিবারের উপর অতর্কিত হামলা চালিয়ে তান্ডবলীলা চালায়। ঘটনার সময় সন্ত্রাসীরা দেশীয় অস্ত্র-শস্ত্রে বাড়ির পাশে জনসাধারণের চলাচলের রাস্তা দখল করে প্রাচীর নির্মাণের পায়তারা করে। ঐ সময় ওসমান গণির স্ত্রী নাজমা বেগম ভ্যানচালক শওকত আলীর স্ত্রী রনজিলা খাতুন সহ অনেকেই বাধা দিতে গেলে তাদেরকে বেধড়ক মারপিটে মারাত্মকভাবে আহত করে। এছাড়া সন্ত্রাসীরা রনজিলার কানের দুল ছিড়ে নেয়। তাতে তার কান ছিড়ে রক্তাক্ত জখম হলে স্থানীয়দের সহায়তায় তালা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়। সন্ত্রাসীরা এতেও ক্ষান্ত না হয়ে ঘটনাস্থলে উপস্থিত অনেককেই খুন জখমের জন্য উদ্যত হলে প্রাণ ভয়ে পালিয়ে যায়। এ সুযোগে জামায়াত সন্ত্রাসীদের জনসাধারণের চলাচলের রাস্তা দখল করে সীমানা প্রাচীর নির্মাণের জন্য খোঁড়াখুড়ি করতে থাকে। এরই প্রেক্ষিতে জমির উপরে গত ২০ ফেব্রুয়ারী নাজমা বেগম বাদী হয়ে সাতক্ষীরা অতিঃ জেলা ম্যাজিঃ আদালতে কার্যবিধি ১৪৫ ধারা মতে ৪২৩/১৭ একটি পিটিশান দাখিল করলে বিজ্ঞ বিচারক নির্মাণ কাজ বন্ধ রাখা সহ আইন শৃঙ্খলা রক্ষার জন্য অফিসার ইনচার্জ পাটকেলঘাটা থানাকে নির্দেশ দেন। একই আদেশে সহকারী কমিশনার (ভূমি) তালাকে তদন্তের জন্য বলা হয়। ভুক্তভোগী নাজমা খাতুন ও জমির মূল মালিক জাহানারা বেগম জানান, কুমিরা মৌজার এসএ ১৪৪২ খতিয়ানের ১৫৩৮ দাগে ৪১ শতক জমির মধ্য হতে বিগত ২০১৩ সালের ১০ নভেম্বর ৪২৪৪ নং কোবলা দলিলমূলে ৩৩ শতক জমি ক্রয় পূর্বক শান্তিপূর্ণ ভোগদখল করে আছেন। এরই মধ্যে প্রতিবেশী জামায়াতের অর্থ যোগানদাতা নাশকতা মামলার আসামী মাও আমজাদ শেখ ও তার পুত্র শিবির ক্যাডার সরকার বিরোধী হরতাল অবরোধের প্রধান পিকেটার হাসান শেখের নেতৃত্বে ১৫-২০ জনের ভাড়াটিয়া সন্ত্রাসীরা জনসাধারণের চলাচলের রাস্তা দখল করে প্রাচীর নির্মাণের পায়তারা করে। এতে বাধা দেওয়ায় নিরীহ পরিবারগুলোর উপর নেমে আসে নানাবিধ অত্যাচার নির্যাতন। এদিকে সারাদেশ ব্যাপী সরকারবিরোধী অপতৎপরতা দমনে জামায়াত শিবিরের গ্রেফতার অভিযান অব্যাহত থাকলেও পাটকেলঘাটা থানা পুলিশ নিরব দর্শকের ভূমিকায় রয়েছে। এতে করে দুর্ধর্ষ জামায়াত শিবির ক্যাডার আজও বেপরোয়া হয়ে নিরীহ পরিবারগুলোর উপর জুলুম নির্যাতন অব্যাহত রেখেছে। এঘটনায় ভুক্তভোগী রনজিলা খাতুন বাদী হয়ে জামায়াত নেতা আমজাদ শেখ ও তার পুত্র শিবিরের ক্যাডার হাসান সহ ১০-১২ জনের নামে থানায় একটি এজাহার দাখিল করেন। এবিষয়ে পাটকেলঘাটা থানার ওসি মহিবুল ইসলাম জানান, ঘটনার তদন্তে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here