শার্শার কৃষকের শীত কালীন সবজি চাষে বাম্পার ফলন! মুখে হাসির ঝিলিক”

0
900

আরিফুজ্জামান আরিফ : আবহাওয়া অনুকূল থাকায় শীত কালীন সবজি চাষে শার্শার কৃষকের মুখে এবার হাসি ফুটিয়েছে।

শার্শা উপজেলার বেনাপোল সহ আশপাশ এলাকার বিস্তীর্ণ মাঠ জুড়ে বাঁধাকপি, ফুলকপি,বরবটি ও সিম চাষ হয়েছে। এসব সবজির ফলন ও দাম বেশী হওয়ায় ব্যাপক লাভের আশা করছেন কৃষক।

উপজেলার বিভিন্ন এলাকা ঘুরে দেখা যায়, অনেকেই শীতকালীন শাকসবজির ক্ষেত পরিচর্যা করছেন। পুরুষের পাশাপাশি মহিলারাও অংশ নিচ্ছেন এ কাজে। অনেককেই ক্ষেত থেকে শীতকালীন সবজি তুলে বাজারজাত করছে আবার কেহ বাজারজাত করণের প্রস্তুতি নিতে দেখা যায়।

চলতি মৌসুমে শার্শা উপজেলায় ১৭‘শ হেক্টর জমি শীত কালিন সবজির চাষ হয়েছে। উপজেলার শার্শা সদর,বেনাপোল, কাগজপুকুর, উলাশী, বাগআঁচড়া, পূটখালী গোগা আশপাশের কয়েক গ্রামে শত শত চাষি শীত কালীন সবজির চাষ করেছে। আবহাওয়া ভাল থাকায় ফলন ও মূল্য ভাল হওয়ায় চাষীরা মহা খুশী।

এবছর বৃষ্টির কারণে নিচু সবজি ক্ষেত কিছু নষ্ট হয়েছে তবে ভাল আছে বেশি। সবজি বাজারে উঠতে শুরু করেছে। বাঁধাকপি, ফুলকপি ও সিমের ফলন ভালো ও দাম বেশি হওয়ায় খুশি কৃষক।

খোজ নিয়ে জানা যায়,একবিঘা জমিতে বাঁধাকপি চাষ করতে ২০ থেকে ২২ হাজার টাকা খরচ হচ্ছে। এক বিঘা সিম চাষ করতে খরচ হয় ১৫ থেকে ২০ হাজার টাকা। বর্তমান বাজারে কপি ও সিমের দাম ভাল হওয়ায় খরচ বাদে কয়েকগুন লাভের আশা করছেন কৃষক।

উপজেলা কৃষি অফিসার হীরক কুমার সরকার বলেন, ‘শার্শা উপজেলায় ১৭‘শ হেক্টর জমিতে শীত কালীন সবজির চাষ হয়েছে। এর মধ্যে ফুলকপি, ওলকপি, বাধাকপি ও সিম ১০০০ হেক্টর নির্ধারণ করা হয়েছে। এবছর চাষীরা আগাম সবজি উৎপাদন করে যথেষ্ঠ লাভবান হচ্ছে। চাষীদেরকে এ সকল ফসল চাষ করার জন্য পরামর্শ প্রদান করছি।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here