সাইকেলেই মেয়েদের খোজারহাট স্কুল জয়

0
362

ডি এইচ দিলসান : এক সময়ে সমাজপতিরা আড় চোখে তাকাতো। মেয়েরা সাইকেল চালাবে! কত আলোচনা-সমালোচনা চলতো হাটে-ঘাটে। চায়ের কাপে অযথাই ঝড় তুলেছেন মেয়েদের এমন সিদ্ধান্তে। এতসব সমালোচনাকে জয় করে তারা এখন দুরন্ত সাইকেল বালিকা। কথা হচ্ছিলো যশোর সদর উপজেলার খোজারহাট স্কুলের স্কুলগামী সাইকেল জাগরণের বালিকাদের নিয়ে।যাদেরকে বিনামুল্যে শেখ হাসিনার তরফ থেকে দেওয়া হয়েছে বাইসাইকেল।

মেয়ে শিক্ষার্থীদের বাইসাইকেল দেওয়ায় এলাকায় জাগরণ সৃষ্টি হয়েছে। বিশেষ করে থোজারহাট এলাকায়। এই তো কয়েক বছর আগেও গ্রামের মেয়েদের বাইসাইকেল চালানোর দৃশ্য জন্ম দিত সমালোচনার, চরিত্রের বিভিন্ন দিক নিয়ে শুরু হতো আলোচনা। গ্রামের সেই সব আলোচনা সমালোচনাকে জয় করে মেয়েরা এখন স্কুল, কলেজ, হাট-বাজার, অফিস, আত্মীয় স্বজনের বাড়িতেসহ বিভিন্ন জায়গায় বাইসাইকেলে যাতায়াত করবে। দিনদিন বাড়ছে তাদের সংখ্যা।

আগে অভিভাবকরা যাতায়াতের অসুবিধার কথা ভেবে দূরের ভালো শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে মেয়েদের ভর্তি করতে চাইতোনা। এখন সে ধারণা পাল্টেছে। মেয়েরাও সকল প্রতিকূল পরিবেশ মোকাবেলা করে তাদের শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে যাবে।

খোজারহাট এলাকার অভিভাবক আবুল হোসেন বলেন, আমার মেয়েকে আগে আমার মোটরসাইকেল করে বিদ্যালয়ে পৌছে দিতে হত । এতে করে আমাকে সময় দুঃশ্চিন্তায় থাকতে হত সঠিক সময়ে পৌঁছে দিতে না পারলে তার ক্লাস মিস হতো নতুবা বিদ্যালয় ছুটি হওয়ার পর আমি সঠিক সময়ে পৌঁছাতে না পারলে বিদ্যালয়ের গেটের পার্শ্বে মেয়েকে আমার জন্য অপেক্ষা করতে হতো । এখন আমার মেয়েকে বাই-সাইকেল দিয়েছে স্কুল আমিও দুঃশ্চিন্তা মুক্ত থাকছি ।

সোমবার স্কুলের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা ইয়াকুব কবির ও ওই এলাকার চেয়ারম্যান মশিয়ার রহমান সাগর স্কুলের ১০জন মেধাবী মেয়েকে বাইসাইকেল তুলে দেন। এ সময় এলাকার অন্যান্য গন্যমান্য ব্যক্তি ও স্কুল শিক্ষকরা উপস্থিত ছিলেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here