প্রেমিক বিয়ে করতে অস্বীকার করায় যশোরে এক কলেজছাত্রীর আত্মহত্যা

0
269

নিজস্ব প্রতিবেদক : বিয়ে করতে অস্বীকার করায় বৃহস্পতিবার দুপুরে সোনিয়া আফরিন শেফা খাতুন (২০) নামে এক কলেজছাত্রী গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেছেন। তিনি যশোর শহরতলী উশহর এফ ব্লকের একটি ছাত্রী নিবাসে এ ঘটনা ঘটে। শেফা সাতক্ষীরার কলারোয়া উপজেলার বিক্রমপুর গ্রামের আব্দুস সবুরের মেয়ে । যশোর শহরতলীর উপশহর এফ ব্লকে আজিজ ছাত্রীনিবাসে থাকতো। যশোরের হাইকোর্ট মোড়ের বেসরকারি কপোতাক্ষ পলিটেকনিক ইনসটিটিউটে সিভিল ইনজিনিয়ারিংয়ের তৃতীয় বর্ষের ছাত্রী । শেফার বোন দিবা খাতুন সাংবাদিক ও পুলিশকে জানান, শেফা কপোতাক্ষ পলিটেকনিক ইনসটিটিউটে ভর্তি হওয়ার দেড়-দুই মাসের মাথায় সহপাঠী মামুনের সাথে প্রেমে জড়িয়ে পড়েন। মামুনের বাড়ি যশোরের মণিরামপুর উপজেলায়। মামুন তার বোন শেফাকে বিয়ে করবে বলে কথা দিয়েছিল। তার মা হেনা বেগম মামুনের বাবার সঙ্গে বিয়ের ব্যাপারেও কথা বলেছেন। কিন্তু মামুনের বাবা ছেলে-মেয়ের প্রেমকে অস্বীকার করে শেফাকে অন্যত্র বিয়ে দিতে পরামর্শ দেন। এরপরও মামুন তার বোনের সঙ্গে সম্পর্ক বজায় রাখে। এমনকি তাদের মধ্যে শারীরিক সম্পর্কও গড়ে উঠে। বৃহস্পতিবার সকালে মামুন প্রেমিকা শেফাকে বিয়ে করবে না জানিয়ে দেয়। একথা শুনে বৃহস্পতিবার বেলা ১২ টায় শেফা ছাত্রীনিবাসের ঘরের মধ্যে ফ্যানের সঙ্গে গলায় দড়ি দিয়ে আত্মহত্যা করে। সহপাঠীরা টের পেয়ে ও আশপাশের লোকজন শেফাকে উদ্ধার করে যশোর জেনারেল হাসপাতালে আনার পথে তার মৃত্যু হয় বলে জানায় বোন দিবা খাতুন। হাসপাতালের জরুরি বিভাগের ডাক্তার আব্দুল্লাহ আল মামুন সাংবাদিকদের জানান, হাসপাতালে আনার আগেই শেফার মৃত্যু হয়েছে। কোতয়ালী থানার এসআই জসিম উদ্দিন খান জানান, কী কারণে মেয়েটি আত্মহত্যা করেছে তা জানা যায়নি। তবে পুলিশ বিষয়টি খতিয়ে দেখছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here